ব্রেকিং নিউজ:
LIVE TV
পোল্যান্ডের আলোক উৎসব;বর্ণীল আলোয় মুদ্ধ দর্শনার্থীরা
নিউজ ডেস্ক    আগষ্ট ২৪, ২০১২, শুক্রবার,     ০৪:১২:৫৭

 

প্রযুক্তির উন্নয়নের সাথে সাথে পাল্টে যাচ্ছে শিল্পকলা। তাই প্রযুক্তি আর আর্ট এখন মিলেমিশে একাকার। সেটাই নতুন করে দেখালো পোল্যান্ডের আলোক উৎসব। কখনো রুপকথার গল্পের মতো মহাবিশ্বের অলি-গলি, আবার কখনো আলোক উজ্জল কোন রহস্যময় জগত তৈরী হচ্ছে দর্শকের সামনে। যার পুরোটাই লেজার রশ্মি কিংবা ত্রিমাত্রিক প্রযুক্তির খেলা।
সত্যিই এ এক অন্যরকম আলোর মেলা। সেই আলোয় উদ্ভাসিত হচ্ছে মানুষ। কেবল আলোকময় কল্পিত বৃক্ষই নয়, এমনি হাজার রকম আলোর খেলা দেখতে প্রতিদিন পোল্যান্ডের এই মেলায় আসছে শত শত দর্শক।
চোখের সামনে রাস্তার ওপর তৈরী হচ্ছে আলোকময় একটি বাড়ি। থ্রিডি এনিমেশনের প্রযুক্তি কোথায় এগিয়ে চলেছে, চোখের সামনেই তার প্রমান পাচ্ছেন দর্শকরা। আর দর্শকই এখানে শিল্পী। কারণ, সেই বাড়ি ভেঙ্গে চুরে গুড়িয়ে দিতে পারছেন যে কেউ।
আয়োজকদের একজন প্রেমেক দ্রাহেম জানিয়েছেন, “এই চতুর্থ আন্তর্জাতিক আলোক উৎসবে এবার আমরা ১২ রকমের আয়োজন রেখেছি। এখানে নতুন ধরণের বাড়ি তৈরি দেখানো হচ্ছে যা আগে কেউ দেখেনি। সেই সাথে ঐতিহ্যবাহী আরো নানা আয়োজনতো আছেই।”
এই আয়োজনে ত্রিমাত্রিক বিভ্রমের ছাড়াও প্লাস্টিকের ভেতর বাতাস ভরে তৈরী করা হয়েছে আলোকময় স্থাপনা। ইসলামী ঐতিহ্যের আদলে তৈরি তিন তলা এই মহাকাশযান তৈরিতে তিন হাজার স্কয়ার মিটার প্লাস্টিক ব্যবহার করা হয়েছে। এই স্থাপত্যটির ভেতরেও আছে আলোর লুকোচুরি খেলা।
আলো, রং, শিল্প, বিজ্ঞান, আর জ্যোর্তিবিজ্ঞানের এক অপূর্ব মিশেলে পোল্যান্ডের এই উৎসব কিছুক্ষনের জন্য হলেও দর্শকদের কল্পলোকের সাধ দিয়েছে।
দর্শনার্থী মাইকেলের চোখে রীতিমতো ভেলকি লেগেছিল। অনুভুতি প্রকাশ করতে গিয়ে জানালেন, "এটা সত্যিই অভাবনীয়। আমরা এখানে তৃতীয় বারের মত আসলাম। আশা করছি সামনের বছর আবার আসব।"
দর্শনার্থী মারতাও মুদ্ধ। সে বলেছে, "এখানে শিশুদেরও আলো নিয়ে খেলার ব্যবস্থা করা হয়েছ। যা আমার সন্তানরা খুবই পছন্দ করেছ।"
পুরো মহাবিশ্বটাই এখানে আপনার হাতের মুঠোয়। এখানে হাঁটতে হাঁটতে হয়তো আপনার মাথার ওপর চলে আসবে নানা বর্ণের তারা, গ্রহ কিংবা উপগ্রহ।
টি.এন/এস.এম.বি/০৪.০০



বিভাগ: বিশ্বযোগ   দেখা হয়েছে ৫৬৮ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :