ব্রেকিং নিউজ:
সাংবাদিকের একমাত্র নিয়ন্ত্রক তার মূল্যবোধ --ইশতিয়াক রেজা
নিউজ ডেস্ক    সেপ্টেম্বর ২২, ২০১২, শনিবার,     ০৯:০২:২৯

 

সাংবাদিকতা দ্রুত বদলাচ্ছে। বদলে যাচ্ছে পৃথিবী। কিন্তু বদলেছে কি আমাদের আমলারা?
অনেকেই হয়তো বলবেন, না, বদলায়নি আমাদের আমলারা। আমি বলি কি-বদলেছে, তারা হাঁটছে, তবে সামনের দিকে নয়, পেছনের দিকে। তারা আরো পেছনে নিতে চায় বাংলাদেশকে। নীতিমালার নামে একবার বেসরকারী টিভি’র অগ্রযাত্রা থামিয়ে দিতে চায়, সেখানে ব্যর্থ হয়ে এবার লেগেছে অনলাইন মাধ্যমের পেছনে। নীতিমালায় কি আছে তা আর বিস্তারিত বলছিনা।
বলছি কতটা খবর রাখেন তারা পৃথিবীর? যুগের পরিবর্তনের? এই বদলে যাওয়া গত দুটি দশকে অভূতপূর্ব গতি আর মাত্রা পেয়েছে। বিশ্বব্যাপী সাংবাদিকরা নিরন্তর সেই পরিবর্তনের সাথে মানিয়ে নিতে সতর্ক।
সাংবাদিকতার ভাষা, নীতি, আদর্শ, প্রযুক্তি এসব বিষয়ে সময়ের সাথে থাকার এক নিরলস সংগ্রামে লিপ্ত সাংবাদিকরা। সময়েরই দাবী অনলাইন সংবাদ মাধ্যমগুলো। অনলাইন কেন? উত্তর খুব সহজ – সমাজ থেকে এগিয়ে থাকার সংকল্প। এটাই এই মাধ্যমের ধর্ম, এখানকার কর্মীদের সংকল্প।
দ্রুত-পরিবর্তনশীল নতুন ধরনের এই সাংবাদিকতায় তরুণদের পদচারণাকে যারা ভয়ের চোখে দেখে তারাই এর কন্ঠ চেপে ধরতে চায়। কিন্তু তারা কি জানেন এই মাধ্যমে যারা আছেন, যারা আসছেন, তাঁরা অকম্প, অদম্য, অবিচল?
এসময়ের সাংবাদিকরা তাঁদের চারপাশকে দেখে, বুঝে, বিচার করেন তাদের মতো করে। কোন বিশেষ গোষ্ঠী বা সম্প্রদায়ের পরামর্শে বা নিয়ন্ত্রণে থেকে নয়। আর এই স্বাধীন, স্বতন্ত্র চিন্তা-চেতনার মধ্য দিয়েই অনলাইন লেখক, সাংবাদিকরা নিজেদের মধ্যে প্রতিযোগিতা করেন- আদর্শ আর মূল্যবোধের।
সাংবাদিকতাকে সরকারী কোন নীতিমালা দিয়ে পরিচলনা করা যায় না। সাংবাদিকদের যদি সত্যি কোন নিয়ন্ত্রক থাকেন তবে তা তার মূল্যবোধ। আর এই মূল্যবোধ গড়ে উঠে মুক্ত, অবাধ, স্বাধীন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে। তাই অনলাইন সংবাদ মাধ্যমের জন্য কোন নীতিমালার প্রয়োজন নেই।
আমাদের রাষ্ট্র ও সমাজ আজ অনেকদিন ধরেই সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। একদিকে তার রাষ্ট্রকাঠমোয় সত্যিকারের গণতান্ত্রিক শাসনের সংকট। অন্যদিকে এই সমাজের কিছু গোষ্ঠী আছে যারা পালাক্রমে ক্ষমতার কেন্দ্রে থাকে, কিন্তু তাদের নতুন চিন্তার সাহসের বড় ঘাটতি।
যারা প্রযুক্তিকে নিয়ে মানুষের কন্ঠস্বর হতে চায় তারা আর যাই হোক আপন ঐতিহ্যে আস্থা হারায়নি। এই কন্ঠস্বর একদিকে যেমন সৎ ও দেশপ্রেমিক, অন্যদিকে তেমনি আন্তর্জাতিকতায় উদ্বুদ্ধ, উদার, শিক্ষাদীপ্ত। নীতিমালা করে এই কন্ঠস্বর নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে না আবার সমাজের প্রগতিকেই আটকে দেয়া হচ্ছে, তা ভাববেন আশা করি নীতিনির্ধারকরা।

সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা
বার্তা পরিচালক, একাত্তর টেলিভিশন
বিভাগ: শীর্ষ সংবাদ   দেখা হয়েছে ৩৫০৬ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :