ব্রেকিং নিউজ:
মশলার দাম বাড়তি,কমেছে ইলিশের দাম
নিউজ ডেস্ক    অক্টোবর ১২, ২০১২, শুক্রবার,     ০৩:২৭:৩৫

 

কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে আমদানী করা রসুনের দাম বেড়েছে। দেশী এবং আমদানী করা পিয়াজের দামও বেড়েছে। ভালো মানের মশুর ডালে ১০ টাকা বেড়েছে। কয়েক দিন ইলিশ ধরা বন্ধ থাকার পর এখন ইলিশের দেখা মিলেছে বাজারে। সরবরাহ বেশি থাকায় দাম কমেছে কেজিতে প্রায় ২০০ টাকা। তবে দেশি মাছের দাম বেড়েছে।
শুক্রবার ছুটির দিন হওয়ায় অন্যান্য দিনের চেয়ে বাজারে কেনা বেচা একটু বেশি হয়। কিন্তু সকাল ১০টার পরও কারওয়ান বাজারে সিটি কর্পোরেশনের মুল্য তালিকা হাল নাগাদ হয়নি। আগের দিনের করা তালিকার লেখা’ও অস্পষ্ট। যেটুকু বোঝা যাচ্ছে তার সাথেও মিল নেই দোকানের পন্যের দামে। আর এ নিয়ে ক্রেতাদের ক্ষোভ থেকেই যাচ্ছে।
সিটি কর্পোরেশনের সাথে বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় পন্যের দামের সমন্বয়হীনতার কথা স্বীকার করছেন খুচরা বিক্রেতারাও। তারা বলছেন কোন প্রকার যাছাই বাছাই ছাড়াই ইচ্ছে মত দাম লেখায় ক্রেতাদের সাথে ঝগড়া হচ্ছে প্রায়ই।
এই সমন্বয়হীনতার মাঝেই ঈদকে সামনে রেখে বাড়তে শুরু করেছে আমদানী করা রসুন, পিয়াজ এবং মশুর ডালের দাম। রসুনের দাম কেজিতে ২০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকায়। ভালোমানের মশুর ডাল ১০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকা। আমদানী করা এবং দেশী পিয়াজের দামও বেড়েছে ৫ টাকা।
বেশকদিন বন্ধ থাকার পর ইলিশ ধরা শুরু হয়েছে। আর এর প্রভাবও পড়েছে বাজারে। এক কেজির একটি ইলিশ এখন দু’শো টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ৮০০ থেকে ৯০০ টাকায়। তবে বর্ষার অজুহাতে দেশি মাছ চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে। শীত প্রায় এসে পড়েছে। বাজারে সবজির সরবরাহ বেশ ভালো। তাই কেজিতে ১০ থেকে ২০ টাকা পর্যন্ত দামেছে সবজির দাম।
জে.ই/এস.এম.বি/০৩.৩০


বিভাগ: অর্থযোগ   দেখা হয়েছে ১২১০ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :