ব্রেকিং নিউজ:
LIVE TV
সংঘর্ষ,ভাংচুর আর অগ্নিসংযোগের মধ্য দিয়ে চলছে হরতাল
নিউজ ডেস্ক    ডিসেম্বর ১১, ২০১২, মঙ্গলবার,     ০৫:২৫:১১

 

বিচ্ছিন্ন চোরাগোপ্তা হামলা, ককটেল বিস্ফোরণ আর গাড়ি ভাঙচুরের মধ্য দিয়ে চলছে ১৮ দলীয় জোটের সকাল-সন্ধ্যা হরতাল। সকাল থেকে হরতাল সমর্থকরা কয়েকটি এলাকায় মিছিল করলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।
হরতাল শুরুর ১২ ঘণ্টা আগে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে পুলিশ গ্রেপ্তার করলে সোমবার সন্ধ্যা থেকেই ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন স্থানে গাড়ি ভাংচুর শুরু হয়।
হরতালের শুরুতেই রাজধানীর গাবতলী এলাকায় বেশকটি গাড়ী ভাংচুর করে দুটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে বিক্ষোভকারীরা।
সকালে হরতালের সমর্থনে ছাত্রদল একটি মিছিল বের করে। পর্বত সিনেমা হল থেকে শুরু কোরে মিছিলটি খালেক পল্লী এলাকায় গিয়ে শেষ হয়। এর পরপরই পিকেটাররা গাড়ি গাড়িভাংচুর শুরু করে।
সকাল ৭টার দিকে মিরপুরের পল্লবীতে বিআরটিসি একটি বাস ভাংচুর করে পিকেটাররা। এর কিছুক্ষণ পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় আগুন দেয় পিকেটাররা।
যাত্রবাড়ীতে পুড়িয়ে দেয়া হয় একটি হিউম্যান হলার। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা পরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।
সকাল ৮টার দিকে হরতালকারীরা কাকরাইলে খাদ্য সচিবের গাড়িতে ভাংচুর চালায় এবং তাতে আগুন দেয়ার চেষ্টা করে।
হরতালের কারণে রাজধানীর গাবতলী ও সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল এক প্রকার বন্ধ রয়েছে। তবে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।
নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে রাজপথ অবরোধে ‘বাধা’র প্রতিবাদে মঙ্গলবার সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা এই হরতাল পালন করছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট।
হরতালে নাশকতা ঠেকাতে রাত থেকেই নগরীতে নেয়া হয় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা। কিন্তু ভোরে ঘন কুয়াশার মধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে হরতালকারীরা তৎপর হয়।
হরতালের কারণে সকালে নগরীতে বিভিন্ন রুটের গণপরিবহণের সংখ্যাও ছিল একেবারেই কম। আসাদ গেইট, কলেজ গেইট, শ্যামলী, কাজীপাড়া, শ্যাওড়াপাড়া, মালিবাগ, মগবাজার এলাকায় অফিসগামী যাত্রীদের বাসের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।
হরতালের বিরোধিতায় মহাখালী, মৌচাক, মালিবাগসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় সরকার সমর্থক বিভিন্ন সংগঠনের কর্মীদের মিছিল করতে দেখা যায়।
এদিকে নয়া পল্টনে বিএনপি কার্যালয় সোমবার থেকেই ঘিরে রেখেছে পুলিশ। হরতালের সকালে কার্যালয়ের কলাপসিবল গেইটের ভেতর থেকে দলের যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী অভিযোগ করেন, সরকার বিএনপি নেতাকর্মীদের ধরতে ‘বেরিকেড’ দিয়ে আছে।

এ.আর/১৩২৫
বিভাগ: সংবাদ সংযোগ   দেখা হয়েছে ৪১৫ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :