ব্রেকিং নিউজ:
LIVE TV
যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবেই-প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যয়
নিউজ ডেস্ক    ডিসেম্বর ১৪, ২০১২, শুক্রবার,     ০৯:৪৮:২৪

 

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পন্ন করতে জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার জন্য মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যত বাধাই আসুক না কেন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শেষ করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করা হবে।
শুক্রবার বিকেলে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের আলোচনায় যুদ্ধাপরাধের বিচার সম্পন্ন করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ জাতিকে মেধাশূণ্য করতেই স্বাধীনতার দুই দিন আগে হত্যাকান্ড চালায় পাকবাহিনীর এদেশীয় দোসর আল-বদর ও আল-শামস বাহিনী। এখনো তাদের প্রেতাত্নারা- মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী শক্তি যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাতিল বা বিলম্বিত করতে নানা ষড়যন্ত্র করছে। তবে কোন ষড়যন্ত্রই কাজে আসবে না। জাতিকে দায়মুক্ত করতে আমরা অবশ্যই যুদ্ধাপরাধের বিচার সম্পন্ন করবো।”
প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ যুদ্ধাপরাধের বিচার করার ম্যান্ডেট নিয়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে। জনগণ অধীর আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছে যুদ্ধাপরাধীদের শাস্তির জন্য। আমার দৃঢ় বিশ্বাস কোন অপপ্রচার তাদেরকে বিভ্রান্ত করতে পারবে না।”
হরতালে সহিংসতার খবর প্রকাশে কিছু গণমাধ্যমের ভূমিকার সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী শক্তিগুলো আন্দোলনের নামে যে সহিংসতা ঘটাচ্ছে, এক শ্রেণির সংবাদপত্র সেসব খবর যথাযথভাবে প্রচার না করে আমাদের ভুলত্রুটি তুলে ধরছে।
শেখ হাসিনা কেউ যেন ভোল পাল্টে দলে ঢুকে অর্ন্তঘাতমূলক কাজ করতে না পারে সেজন্য দলীয় নেতা-কর্মীদের সতর্ক থাকতে বলেন । তিনি বলেন, “নির্বাচনের এক বছর আগে কেউ কেউ রাজনৈতিক পরিচয় বদল করে দলে ঢুকতে চাইবে এবং তাদের ধ্বংসাত্মক রাজনীতির দায় আমাদের ওপর চাপাবার জন্য অন্তর্ঘাতমূলক কর্মকাণ্ড চালাতে পারে।”
শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আয়োজিত এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংসদ উপ-নেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী। অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, শহীদ বুদ্ধিজীবীজায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী,মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া প্রমুখ।
সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী শক্তি অপচেষ্টা চালাচ্ছে যাতে জনগণ ১৯৭১ সালে যুদ্ধাপরাধীদের ঘটানো অপকর্ম ভুলে যায়। আমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে তাদের বিচার করছি।
যুদ্ধাপরাধীদেরকে বাঁচাতে জামায়াতের আন্দোলনে সমর্থন দেয়ার জন্য বিএনপি’র সমালোচনা করে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেন,“সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচার নিয়ে কোন কিছু লুকাচ্ছে না। গত সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জনগণের কাছে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করার যে অঙ্গীকার করেছিল তা বাস্তবায়ন করবেই।”
এম. এস./২১.৪৫
বিভাগ: সংবাদ সংযোগ   দেখা হয়েছে ১১৩৯ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :