ব্রেকিং নিউজ:
LIVE TV
পৃথিবী ধ্বংসের গুজব উড়িয়ে দিল নাসা
নিউজ ডেস্ক    ডিসেম্বর ২১, ২০১২, শুক্রবার,     ০৩:৪৩:০৯

 

আজ ২১ ডিসেম্বর। আজই কি শেষ হচ্ছে বিশ্ব সভ্যতা আর মায়ার এই পৃথিবী? এমন কথাই লেখা আছে মায়া সভ্যতার পঞ্জিকায়। তবে এটিকে নিছক গুজব বলে উড়িয়ে দিচ্ছে নাসা। বিশ্ববাসীর সচেতনতা বাড়াতে নাসা এরই মধ্যে এ বিষয়ে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে।
২১ ডিসেম্বর ২০১২ সালে ধ্বংসের দিকে এগিয়ে যাবে পৃথবী। মহাদুর্যোগের মধ্য দিয়ে সাঙ্গ হবে বিশ্ব সভ্যতা। বলা হচ্ছে সৌরঝড়ের ভয়ষ্কর তেজষ্ক্রিয়তা থেকেই ঘটবে পৃথীবি ধ্বংসের সুচনা। যা ডেকে আনবে ধারাবাহিক দুর্যোগ। জেগে উঠবে আমেরিকার ইয়েলোস্টোন আগ্নেয়গিরি। ঘটাবে ভয়ঙ্কর বিস্ফোরণ। ছাইয়ের অন্ধকারে ঠেকে যাবে সভ্যতা। চূড়ান্ত পরিণতির দিকে এগিয়ে যাবে পৃথিবী। এসবই বলা আছে মায়া সভ্যতার ক্যলেন্ডার। ২০১২ সালের ২১ ডিসেম্বরের পর আর কোন দিনের উল্লেখ নেই মায়া পঞ্জিকায়। তাই এ দিনটিকেই পৃথিবীর শেষ দিন বলে তাদের বিশ্বাস।
তবে উল্টো ধারণা মহাবিশ্ব বিশেষজ্ঞদের। তাঁদের মতে এটি স্রেফ গুজব ছাড়া আর কিছুই নয়। তাঁরা বলছেন, কক্ষপথে হাজারো স্যাটেলাইট, শক্তিশালী হাবল টেলিস্কোপ আর ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশনে থাকা নভোচারীরা পৃথিবী ধ্বংসের ন্যূনতম কোন আলামতও দেখছেন না। তাই এ নিয়ে মানুষের আতঙ্ক দূর করতে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে নাসা। যেখানে বোঝানো হয়েছে পৃথিবী ধ্বংসের মতো কোন কারণ ঘটেনি।
নাসার মাল্টিমিডিয়া প্রোডিউসার মাইকেল ব্রোডি জানিয়েছেন, "আমরা বিশ্ববাসীকে জানাচ্ছি ২১ ডিসেম্বর পৃথিবী ধংস হবেনা। যা এই ভিডিওর মাধ্যমে পরিস্কার বোঝানো হয়েছে। অনেক জোতির্বিজ্ঞানী এ নিয়ে গবেষণা করেছেন। তারাও বলছেন পৃথিবী ধংসের কোন সম্ভাবনা নেই।"

এদিকে প্রলয় নাচন আর প্রার্থনার নানা আচারে পৃথিবী ধ্বংসের দিনটি পালন করছে মেক্সিকো আর গুয়াতেমালার মানুষ। মায়া ধর্মে বিশ্বাসীরা হাজির হয়েছেন শেষ প্রার্থনায়। নেচে গেয়ে বিশ্ব সভ্যতার শেষ মুহুর্তটিকে উপভোগ করছেন তারা। তাদের বিশ্বাস আজই সাঙ্গ হতে পারে এই বিশ্ব সভ্যতার সকল লীলা। তবে পর্যটকদের কাছে দিনটি নিয়ে এসেছে আলাদা গুরুত্ব। নতুন আগ্রহ নিয়ে তারা ঘুরে দেখছেন মায়া সভ্যতার প্রাচীন সব নিদর্শন। ভীড় জমিয়েছেন মেক্সিকোর প্রত্নতাত্বিক নিদর্শণ চিচেন ইতজা-য়। সেখানে নেচে গেয়ে পৃথিবীর ধ্বংস মুহুর্ত উদযাপন করছে মায়া বিশ্বাসী আদিবাসীরা। তবে বিশ্বাসীদের ভাষ্য হলো মায়া পঞ্জিকাতে এখন পর্যন্ত যত ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়েছে তার সবই সত্য হয়েছে। আর তাই ২১ ডিসেম্বরের দিকেই তাকিয়ে আছেন বিশ্ববাসী।

জে.এম/এস.এম.বি/০১.৪৫
বিভাগ: প্রধান সংবাদ    দেখা হয়েছে ১৩২৫ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :