ব্রেকিং নিউজ:
জনসমর্থন নেই, জোড় করে ক্ষমতা আঁকড়ে আছে সরকার: খালেদা জিয়া
    জানুয়ারী ২০, ২০১৪, সোমবার,     ০৮:০০:৩৮

 

দশম নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করে সব দলের অংশগ্রহণে আরেকটি নির্বাচনের দাবিতে বছরের প্রথম সমাবেশ করেছে বিএনপি।
সোমবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির এই সমাবেশে যোগ দিতে দুপুর থেকেই রাজধানীসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করে বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।
মঞ্চে ১৮ দলের অনেক নেতা-কর্মী উপস্থিত থাকলেও জোটের অন্যতম শরিক জামায়াতে ইসলামীর কাউকে দেখা যায়নি। গত ১৫ জানুয়ারি সংবাদ সম্মেলনে খালেদা জিয়া ১৮ দলের পক্ষ থেকে এই কর্মসূচি ঘোষণা করলেও, আজকের এই কর্মসূচি পালন করছে শুধুমাত্র বিএনপি।
সমাবেশে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া রাজনৈতিক সঙ্কট সমাধানে অতিদ্রুত আলোচনায় বসার আহ্বান জানান। বেগম খালেদা জিয়া বলেন,আজকের সমাবেশ প্রমাণ করেছে যে জনগণ আমাদের সঙ্গে রয়েছে। ক্ষমতায় থাকতে হলে জনগণের সমর্থন থাকতে হয়, শুধু অস্ত্রের জোড়ে ক্ষমতায় থাকা যায় না।
তিনি বলেন,এ সরকার সন্ত্রাসীদের সরকার, জনগণের কোন সমর্থন না থাকলেও এ সরকার জোড় করে ক্ষমতা আঁকড়ে আছে, আজীবন ক্ষমতায় থাকার জন্য সংবিধান সংশোধন করেছে। জনগণ এ প্রহসনের নির্বাচন মানেনি। তাই অবিলম্বে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে।
খালেদা জিয়া বলেন, বিএনপি নয়- এ সরকারই জনগণের সম্পদ চুরি করে বিদেশে টাকা পাচার করেছে। জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে ফেরাতে সংখ্যালঘুদের উপর হামলা করছে, এর দায়-দায়িত্ব সরকারের। সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দিতে ও দোষীদের শাস্তি দিতে সরকার ব্যর্থ হয়েছে।
তিনি বলেন, আমারা জনগণের জন্য কাজ করবো, সকল ধর্মের মানুষকে সমান অধিকার দিয়ে আমরা এ দেশের মানুষের অধিকার নিশ্চিত করবো।
খালেদা জিয়া বলেন, বিএনপি নেতাদের অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার করে রাখা হয়েছে। তাই সব রাজবন্দীদের অবিলম্বে মুক্তি এবং যৌথ বাহিনীর অভিযানের নামে জনগণের উপর নির্যাতন বন্ধের দাবি জানান তিনি।
তিনি আরো বলেন, সরকার সঠিক ব্যাখ্যা না দিয়ে ইনকিলাব কাগজ বন্ধ করেছে, একটার পর একটা পত্রিকা বন্ধ করে সাংবাদিকদের জেলে নিচ্ছে।

এম. এস/১৭:৪৫
বিভাগ: শীর্ষ সংবাদ   দেখা হয়েছে ৩১৮৩ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :