ব্রেকিং নিউজ:
LIVE TV
অলিম্পিক আয়োজনের বাঙালিরা...
খেলাযোগ ডেস্ক    জুলাই ২৭, ২০১২, শুক্রবার,     ০৪:১২:৩৩

 

অলিম্পিক আয়োজনের দৌড়ে পিছিয়ে নেই বাঙালিরাও। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত বৃটিশ তরুনদের অংশগ্রহনে ভালভাবেই এগিয়েছে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের রথ।

অলিম্পিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মূল পর্বে অংশগ্রহণের সৌভাগ্য হয়েছে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত যেসব ব্রিটিশের, তাদের একজন এই কামরুজ্জামান। টানা রিহার্সেল শেষে ফেরার পরই কথা হলো স্ট্রাটফোর্ডের অধিবাসী কামরুজ্জামানের সঙ্গে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ব্রিটেনের শিল্প বিপ্লব নিয়ে রয়েছে ১৫ মিনিটের একটি অভিনয় পরিবেশনা। পেশাদার দশজন শিল্পীর সঙ্গে অংশ নেবেন প্রতিযোগিতা করে নির্বাচিত হয়ে আসা আরও ৪০ শিক্ষার্থী শিল্পী। তারা সবাই ব্রিটেনের বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। কামরুজ্জামান তাদের অন্যতম। একজন বাঙালি হিসেবে অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের উপস্থাপনায় অংশ নিতে পেরে ভীষণ গর্ব অনুভব করছেন সিলেটের বিয়ানীবাজারের আস্টসাঙ্গন গ্রামের আবদুল হালিমের ছেলে এ তরুণ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরেক উচ্চমানের বাঙালি তরুণ আকরাম খানের উপস্থাপনা দেখার জন্য মুখিয়ে আছেন সবাই।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মূল পরিকল্পনাকারী অস্কারজয়ী নির্মাতা ড্যানি বোয়েল অনুষ্ঠানের একটি একক পরিবেশনার ভার দিয়েছেন নামি নৃত্যশিল্পী, কোরিওগ্রাফার ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত বাংলাদেশি আকরাম খানকে। অলিম্পিকে যার নৃত্যশৈলীর মুগ্ধতা ছড়াবে সারাবিশ্বে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের কোরিওগ্রাফি মাথায় রেখে নানা নৃত্য প্রযোজনা দেখে বেড়াচ্ছিলেন স্ল্যামডগ মিলিয়নিয়ার ছবির পরিচালক বোয়েল। অবশেষে আকরামকেই তার পছন্দ হয়। পুরো অনুষ্ঠানের কোরিওগ্রাফির প্রস্তাব পেলেও আকরাম শুধু নিজের একক পরিবেশনার ব্যাপারে রাজি হন। বিশেষ কী করবেন অলিম্পিকে এমন প্রশ্নে আকরাম বলেন, 'অলিম্পিকে আমার পরিবেশনার দায়িত্ব একান্তই আমার জন্য উন্মুক্ত করে দিয়েছেন ড্যানি। আমি চেষ্টা করে চলেছি, একেবারে ভিন্ন ধাঁচের নৃত্যকর্ম উপহার দিতে।'
খেলায় অংশগ্রহণ খুব বেশি না হলেও এবারের অলিম্পিক আয়োজনে বিভিন্নভাবে জড়িয়ে আছেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী বাংলাদেশিরা। বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়াযজ্ঞ অলিম্পিকের আসর বসছে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে। বাঙালি অধ্যুষিত পূর্ব লন্ডনের স্ট্রাটফোর্ডে অলিম্পিকের মূল মঞ্চ অলিম্পিক ভিলেজ। বাড়ির আঙিনায় উৎসব, তাই বর্ণিল হয়ে উঠেছে বাঙালিপাড়া।

এস.এম.বি/০৪.০৫
বিভাগ: খেলাযোগ   দেখা হয়েছে ৭৭২ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :