‘সময়ের প্রয়োজনেই আওয়ামী লীগের কৌশল পরিবর্তন’

জাতীয়তাবাদ, গণতন্ত্র, ধর্ম নিরপেক্ষতা ও সমাজতন্ত্র; এই চার মূল নীতির উপর প্রতিষ্ঠিত আওয়ামী লীগ। তবে বিশ্লেষকরা বলছেন; পাল্টে যাওয়া সামাজিক প্রেক্ষাপটে আদর্শর সাথে সমঝোতা করতে দেখা গেছে দেশের প্রাচীন এই দলটিকে। দলটির নেতা আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন সময়ের প্রয়োজনেই কৌশল পরিবর্তন করেছে আওয়ামী লীগ।

প্রথম সমাবেশেই মানুষের নজর কেড়েছিলো আওয়ামী মুসলিম লীগ। বাংলা ভাষা ও পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার মূলনীতি বাস্তবায়নের মতো জনমুখী দাবি নিয়ে শুরু করে আন্দোলন। দলের সভাপতি ছিলেন মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী। সাধারণ সম্পাদক শামসুল হক ও যুগ্ম সম্পাদক শেখ মুজিবুর রহমান।

১৯৫৫ সালের সম্মেলনে মুসলিম শব্দটি বাদ দিয়ে অসাম্প্রদায়িক চেতনাকেই সামনে আনে দলটি। শুরুতে স্বায়ত্ব শাসন ও রাষ্ট্র ভাষার মর্যাদা প্রতিষ্ঠার ২১ দফা দাবি; পরে ৬ দফা দাবির মাধ্যমে দেশকে স্বাধীনতা সংগ্রামের দিকে এগিয়ে নেয় আওয়ামী লীগ।স্বাধীনতার পর আওয়ামী লীগের নীতি-কৌশলে আসে পরিবর্তন। ৭৫ এর হত্যাকাণ্ডের পর সেই দু:সময়েও গণতন্ত্র, ধর্ম নিরপেক্ষতা ও সমাজতন্ত্র ছিলো দলটির মূলনীতি। তবে এরপর আদর্শের সাথে আপোষ করেছে আওয়ামী লীগ; বলছেন এই গবেষক।

সাম্প্রতিক বছরগুলোর নির্বাচন নিয়েও প্রশ্ন আছে বিশ্লেষকদের। যার পাল্টা জবাবও আছে দলের সিনিয়র নেতাদের।

আওয়ামী লীগ স্বপ্ন দেখিয়েছে। স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে হাটছে। এই মুহুর্তে সেটাই দলটির সফলতা।

প্রতিবেদক: অহিদুল ইসলাম।

Leave a comment