ঢাকায় টিকিট ছাড়া বাসে ওঠা যাবে না

বাসে উঠে ভাড়া পরিশোধ নয়, টিকেট কেটেই উঠতে হবে বাসে। হাতে হাতে ভাড়া কাটার পুরনো পদ্ধতি তুলে দিয়ে, আগামী দু’সপ্তাহের মধ্যে ঢাকার সব পাবলিক বাসে চালু হচ্ছে টিকেট ব্যবস্থা। দক্ষিণের মেয়র জানিয়েছেন, এজন্য চলছে মাঠ পর্যায়ের কাজ। এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন পরিবহন শ্রমিক ও যাত্রীরাও।

ঢাকার পাবলিক বাসে যাত্রী উঠানামায় নিয়মের বালাই নেই, তেমনি ভাড়া আদায়েও নেই কোন শৃঙ্খলা। পথে পথেই বিশৃঙ্খলা। বিশ্বের বহু-শহরের পাবলিক বাসে ভাড়া নেয়া হয় ডিজিটাল পদ্ধতিতে। আর এখনো ঢাকায় চলছে হাতে-হাতে ভাড়া কাটা। এমন বাস্তবতায় নগর পরিবহনে শৃঙ্খলা আনতে ঢাকার পাবলিক বাসে টিকেট ব্যবস্থা চালুর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বাস রুট র‌্যাশনালাইজেশন কমিটির সবশেষ সভায় সব পক্ষের ঐক্যমতের ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত।

টিকেট পদ্ধতি হলে বাস ভাড়া আদায়ে লোকসান কমবে বলে মনে করেন পরিবহন শ্রমিকেরা। এতে করে তাদের পরিশ্রমও কমবে বলে মনে করছেন তারা।

ঘোষণা ছিলো রোজার ঈদের পরপরই চালু হবে টিকেট ব্যবস্থা। কিন্তু, মাঠ পর্যায়ের কাজ শেষ না হওয়ায় বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় কিছুটা দেরি হচ্ছে। তবে আগামী ১০-১৫ দিনের মধ্যেই যাত্রীরা টিকেট কেটে বাসে উঠতে পারবেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন। তিনি মনে করেন, এর ফলে পরিবহন খাতে বিশৃংখলা কমে আসবে।

পরিকল্পনা অনুযায়ী, ঢাকার যাত্রী ছাউনিগুলোতে থাকবে টিকেট বিক্রির বুথ। এসব বুথ থেকে টিকেট কেটে বসতে হবে বাসে। এতে, বন্ধ হবে যত্রতত্র যাত্রী উঠানামা।

বর্তমানে ঢাকা মহানগরীতে প্রায় পৌনে তিনশো রুটে চলছে দেড়শোর বেশি কোম্পানির অন্তত চল্লিশ হাজার বাস-মিনিবাস।

ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান

Leave a comment