ভারতকে টপকাতে পারলে আকাশে উড়বে বাংলাদেশ

ভারতের সাথে ম্যাচ জিতলে সেটা হবে বড় অর্জন আর ওই একটা জিতই পাকিস্তানের বিপক্ষে মানসিকভাবে শতভাগ এগিয়ে রাখবে বাংলাদেশকে, মনে করেন মেহেদী হাসান মিরাজ। সিনিয়রদের পাশাপাশি জুনিয়র ক্রিকেটাররাও ম্যাচে অবদান রাখায় টিম পারর্ফ্যান্স ভালো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মিরাজ।

মুস্তাফিজের কথাই ধরা যায়। হয়তো দুনিয়া কাঁপানো কিছু বিশ্বকাপে এখোনো করেননি, কিন্তু ওর দশ উইকেট দলকে দারুণ সাহায্য করেছে। একই কথা মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের বেলাতেও খাটে, তার ঝুলিতেও দশ উইকেট। ডেথ ওভারে চলতি বিশ্বকাপে বাংলার সেরা বোলারও সাইফউদ্দিন।

সৌম্যর কাছে অনেক বেশি প্রত্যাশা থাকলেও পুরোটা মেটাতে পারেননি আবার খারাপও করেননি। সাউথ আফ্রিকার সাথে ফোর্টি প্লাস বা অস্ট্রেলিয়ার সাথে তিন উইকেট; অবশ্যই প্রশংসনীয়। মূল কথা, সুপারম্যান সাকিব কিংবা মিডল অর্ডারের ভরসা মুশফিকদের বেশ ভাল সাপোর্টই দিচ্ছেন জুনিয়ররা। টাইগারদের টিম পারর্ফম্যান্সও তাই বেশ ভালো।

সেমির সম্ভাবনা এখনও যথেষ্ট বাস্তবসম্মত। শেষ চারে খেলতে পরবর্তী হার্ডলে ভারতকে টপকাতে পারলে, আকাশেই উড়বে বাংলাদেশ। ক্রিকেটাররাও এই মিশনেই বার্মিংহ্যামে।

” ভারতের সাথে জিতলে বিশ্বকাপে এটা হবে আমাদের জন্য বড় পাওয়া । কেননা সেটার ফলে পরের স্টেপটাও অনেক ইজি হয়ে যাবে। স্পিনাদের বড় ভূমিকা পালন করতে হবে। আমার,সাকিব ভাই ও মুশফিক ভাইকে মাঝখানের ওভারগুলো কন্ট্রোল করে রান করতে হবে।”

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিতে বার্মিংহ্যামেই ভারতের সাথে খেলেছিলো বাংলাদেশ। আর এটাও মানতে হবে, চেনা মাঠে বাংলাদেশও কম যায় না।

ওয়েব সম্পাদনা : সালমা সাবিহা খুশি

 

Leave a comment