গ্যাসের নতুন দাম শিল্পের জন্য অসহনীয়

গ্যাসের দাম আবারও বাড়ায় শিল্পের সক্ষমতা আরও কমবে, বলছেন উদ্যোক্তারা। তাদের মতে, বিশ্ববাজারে তীব্র প্রতিযোগিতার সময়, এটি বিনিয়োগকে আরও স্থবির করে দেবে। আর অর্থনীতিবিদরা বলছেন, সরকারের লাভের জন্যই শুধু গ্যাসের দাম বাড়ানো ঠিক নয়।

আমদানিকৃত এলএনজির সাথে দাম সমন্বয়ের অজুহাতে রোববার বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরী কমিশন-বিইআরসি গ্যাসের দাম গড়ে ৩২ দশমিক ৮ শতাংশ বৃদ্ধির ঘোষণা দেয়। পয়লা জুলাই থেকেই নতুন দর কার্যকর।

টেক্সটাইল ও প্লাস্টিক সহ দেশের সব শিল্প খাতেই নিজস্ব জেনারেটরে বিদ্যুৎ উৎপাদন সহ কারখানা নানা উৎপাদন প্রক্রিয়া চলে গ্যাসে। তাই এই ব্যবসায়ী নেতা বলছেন ২০১০ সালের পর গ্যাসের দাম ৪৪৪ শতাংশ বাড়ার বোঝা শিল্পের জন্য অসহনীয় হয়ে উঠেছে।

উদ্যোক্তারা বলছেন আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতিযোগিতা এখন তীব্র। তাই হুট গ্যাসের দাম বাড়ায় উৎপাদন খরচ বেড়ে উৎপাদন সক্ষমতা হারাচ্ছেন তারা। এটি বিনিয়োগ এবং প্রবৃদ্ধির জন্যও হুমকি।

অর্থনীতিবিদ বলছেন এলএনজির সাথে গ্যাসের দাম সমন্বয় হতে পারে।তবে এর ফলে সরকারের মুনাফা বাড়লেও শিল্পের ক্ষতি হচ্ছে।

তার মতে গ্যাসের দাম বাড়ানোর আগে এর আমদানি ব্যয় এবং এর ব্যবহারকারী শিল্পের ক্রয় স্বক্ষমতা নিয়ে সমীক্ষা জরুরী। নয়তো দর বৃদ্ধির যৌক্তিকতা নিয়ে ব্যবসায়ীদের সন্দেহ থাকা অস্বাভাবিক নয়।