বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন বন্ধে মোবাইল কোর্ট

সরকারের নির্দেশনার পরও কোনো বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন প্রচার বন্ধ করেনি। পয়লা জুলাই থেকে বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন প্রচার না করার নির্দেশ দিয়েছিলো সরকার। তাই এবার নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা দিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ।

বাংলাদেশে চলা বিদেশী চ্যানেলগুলোতে বিজ্ঞাপন প্রচার এখনও বন্ধ হয়নি। সোমবারও জি বাংলা, স্টার প্লাস ও স্টার জলসার মতো বিদেশী চ্যানেলগুলো আগের মতোই বিজ্ঞাপন প্রচার হতে দেখা গেছে।

ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইনে বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন সম্প্রচার করা হলে লাইসেন্স বাতিল এবং দুই বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডের বিধান আছে। তবে সেটি উপেক্ষা করেই বেআইনীভাবে বিজ্ঞাপন চলছিলো। এটি বন্ধ করতে গেল বছরের নভেম্বরে ৬ মাস সময় দিয়ে একটি পরিপত্র জারি করে তথ্য মন্ত্রণালয়।সেই ছয় মাস শেষ হলো সোমবার।

তাই এবার আইনটি কার্যকর করতে সোমবার থেকেই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার ঘোষণা দিলেন তথ্যমন্ত্রী।

এদিকে জন্মের ক্রম অনুসারে টিভি চ্যানেলগুলো দেখানোর নির্দেশনা থাকলেও সোমবার পর্যন্ত সেটিও কার্যকর করেনি ক্যাবল অপারেটররা। তথ্যমন্ত্রী জানান ক্যাবল অপরেটরা অনিদিষ্টকালের জন্য সময় চান। তাদের জন্য সময় আর বাড়ানো সম্ভব নয়।

তিনি জানান, সরকার সম্প্রচার আইন করতে যাচ্ছে; সেখান সম্প্রচারের মাধ্যমে কর্মীদের জন্যেও আলাদা ওয়েজ বোর্ডের ব্যবস্থা থাকবে।