‘বন্দুকযুদ্ধে’ স্বস্তি!

কথিত বন্দুকযুদ্ধে বরগুনার রিফাতের অন্যতম খুনি ‘নয়ন বন্ডে’র মৃত্যুর ঘটনায়, রাজধানীর অনেকেই স্বস্তি প্রকাশ করেছেন। তাদের মতে, ভয়ানক এসব ঘটনার বিচার এমনই হওয়া উচিত। তবে প্রত্যেক আসামীরই আইনের মুখোমুখি হবার অধিকার আছে বলেও মনে করেন কেউ কেউ।

বিচার প্রক্রিয়ার উপর আস্থা কমে যাওয়ায় বিচার বর্হিভূত হত্যাকাণ্ডের প্রতি মানুষের সমর্থন বাড়ছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। তারা বলেন, বিচার বর্হিভূত হত্যাকাণ্ডে সাময়িক স্বস্তি মিললেও রাষ্ট্রের জন্য দীর্ঘ মেয়াদী নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে আসতে পারে।

যে ভিডিও দেখে আতঙ্কিত হয়ে ওঠেছিলেন সব বয়সী মানুষ, কয়েকদিন না যেতেই সেই ভিডিওর হত্যাকারী নয়ন বন্ডের গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায় বাড়ীর পাশে। কথিত বন্দুকযুদ্ধে অভিযুক্ত খুনি নয়ন বন্ডের মারা যাবার খবরে স্বস্তি জানান অনেকে।

এই হত্যাকাণ্ডে মানুষের সমর্থনের ঘটনায় অবাক হননি অপরাধ বিজ্ঞানী জিয়াউর রহমান। তিনি মনে করেন, বিচার পাওয়া নিয়ে জনমনে তৈরি হওয়া সংশয়ের কারণেই তারা এইসব হত্যাকান্ডে সমর্থন জানাচ্ছে। আর সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, আগের কিছু হত্যাকাণ্ডের সু্ষ্ঠু বিচার না হওয়ায় মানুষের মধ্য আস্থাহীনতা তৈরী হয়েছে। যদিও সাময়িক এসব পদক্ষেপ অপরাধ দমনে কার্যকর ভূমিকা রাখবে না বলে মনে করেন তারা। তারা বলেন, উন্নত রাষ্ট্রের কাতারে পৌঁছাতে হলে সরকারকে সমস্যার গভীরে যেতে হবে।

প্রতিবেদক: আরেফিন শাকিল

ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান