৯ জনের ফাঁসি ২৪ জনের যাবজ্জীবন

পাবনার ঈশ্বরদীতে ১৯৯৪ সালে শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলি ছোড়ার দায়ে নয়জনের মৃত্যুদণ্ড, ২৫ জনের যাবজ্জীবন আর ১৩ জনের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছে আদালত। দণ্ডপ্রাপ্তরা বিএনপি’র নেতা-কর্মী। রায়ে বাদীপক্ষ সন্তোষ জানালেও আসামীপক্ষের আইনজীবীরা বলছেন, এটি প্রহসনের রায়,ন্যায়বিচারের জন্যে তারা উচ্চ আদালতে যাবে।

১৯৯৪ সালের ২৩শে সেপ্টেম্বর পাবনার ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশনে যাত্রাবিরতি করলে, ট্রেনে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কামরা লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া করা হয়। এ ঘটনায় ঈশ্বরদী জিআরপি পুলিশ ওই দিনই মামলা দায়ের করে। ৩ বছর পর ১৯৯৭ সালের ৩রা এপ্রিল মোট ৫২ জনের নামে এ মামলার চার্জশিট দেয় পুলিশ। তদন্ত শেষে ঈশ্বরর্দীর বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীসহ ৫২ জনকে এই মামলার আসামি করা হয়।

চাঞ্চল্যকর এই মামলার প্রধান আসামি ঈশ্বরদী পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া পিন্টুসহ চার বিএনপি নেতা আদালতে হাজির না হওয়ায় তাদের নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। মঙ্গলবার মামলার দুই আসামি মকলেছুর রহমান বাবলু এবং বিএনপি নেতা আব্দুল হাকিম টেনু আদালতে আত্মসমর্পণ করেন।

রায় নিয়ে আসামি পক্ষের আইনজীবী জানান, এই রায় প্রহসনের। তারা ন্যায় বিচারের জন্যে উচ্চ আদালতে যাবেন। আর সরকার পক্ষের কৌশুলিরা জানান, বিএনপি সরকারের সময় দীর্ঘদিন এই মামলা ভিন্ন খাতে প্রবাহের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু আজকের রায়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা হয়েছে।

এ মামলার ৫২ আসামির মধ্যে মারা গেছে পাঁচজন। এখনো পলাতক আছে ১৫জন।

প্রতিবেদক: মুস্তাফিজুর রহমান এবং শাহিন সানজিদা

ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান