প্রতিবাদের মুখে বক্তব্য স্পষ্ট করলেন ওবায়দুল কাদের

আগামি ২১ জুলাই থেকে নতুন সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু করবে আওয়ামী লীগ। এই তথ্য জানাতে গিয়ে গেলো শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছিলো; সাতচল্লিশ আটচল্লিশ বছর আগে কার বাবা দাদারা কি করেছে, সেটি এখন বিবেচ্য নয়।

কাদেরের এই বক্তব্যের সমালোচনা করে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের মানুষেরা। বৃহস্পতিবার দলের ধানমন্ডি কার্যালয়ের সামনে প্রতিবাদ জানিয়েছেন তারা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা করেছেন শহীদ পরিবারের সন্তানরা।

এ পরিস্থিতিতে মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার চেতনাবিরোধী কাউকে দলের সদস্য করা হবে না বলে জানালেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। বললেন, সদস্য সংগ্রহ অভিযানে দলের এই নীতিমালার কোন পরিবর্তন হবে না। এর আগে তার বক্তব্য ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে বলেও দাবি করেন ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়ে নিজের ওই বক্তব্যকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে বলে জানালেন ওবায়দুল কাদের। বলেছেন স্বাধীনতার চেতনাবিরোধী কেউ দলের সদস্য হতে পারবেনা। যুদ্ধাপরাধী পরিবারের কেউ আগে কোনভাবে দলে ঢুকে থাকলে তাদের সদস্যপদ নবায়ন করা হবে না বলেও জানান তিনি।

কাদের জানান,অপরাধীদের বিষয়েও কঠোর হবে আওয়ামী লীগ। যেই অপরাধ করুক তিনি দলের যে পর্যায়েই থাকুন তাকে শাস্তি পেতে হবে।

প্রতিবেদক: সৌমিত্র মজুমদার

ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান