ধর্ষণ প্রতিরোধে অভিভাবকদের সতর্ক থাকতে বলল প্রশাসন

পরপর দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের যৌন নিপীড়নের ঘটনা ফাঁস হওয়ায় উদ্বিগ্ন নারায়ণগঞ্জের মানুষ। তারা বলছেন, যেখানে সেখানে অনুমোদনহীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠা আর সেগুলোর তদারকি না করার কারণেই এই বিশৃঙ্খলা। আর এমন ঘটনা প্রতিরোধে,অভিভাবকদের সবচাইতে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছে প্রশাসন।

সম্প্রতি সিদ্ধিরগঞ্জের অক্সফোর্ড হাই স্কুলের কমপক্ষে ৭০ জন শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় গ্রেপ্তার হন শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম। প্রতারণার ফাঁদে ফেলে ছাত্রীদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের ছবি তুলতো সে। তার হাত থেকে বাদ যাননি স্কুলের শিক্ষিকাও। আবার ফতুল্লায় ১২ শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক হয় কুতুবপুরের বাইতুল হুদা ক্যাডেট মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আল আমিন। পর্ন ভিডিও চিত্রে ছাত্রীদের ছবি বসিয়ে ব্ল্যাকমেইল করতো এই মাদ্রাসা অধ্যক্ষ। পরপর এমন দুটি ঘটনায় উদ্বিগ্ন জেলার সাধারণ মানুষ। আর এসব ঘটনার সঠিক বিচারের দাবি করেছেন সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার মাদ্রাসার ১২ জন শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় গ্রেপ্তার প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে আলাদা দুটি মামলা হয়েছে। শুক্রবার সকালে ফতুল্লা থানায় মামলা দুটি দায়ের করা হয়। এসব ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় জেলা প্রশাসক বলেছেন, সারা জেলায় অনুমোদনহীন বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে । এগুলোর ওপর নজরদারি না থাকায় এই সামাজিক অবক্ষয় বন্ধ করা যাচ্ছে না।

এমন ঘটনা বন্ধ করতে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টির আহবান জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। প্রশাসনের কর্মকর্তারা জানান, আর দুর্ঘটনা ঘটে গেলে ভয় না পেয়ে সরাসরি আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে আসার বিকল্প নেই।

প্রতিবেদক: বুলবুল আহমেদে এবং মনিরা কাজরী

ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান