দেশে প্রথম সফল লিভার ট্রান্সপ্লান্ট

বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে প্রথমবারের মতো লিভার ট্রান্সপ্লান্ট করা রোগী সিরাজুল ইসলাম সুস্থ আছেন। সুস্থ আছেন, লিভার দাতা সিরাজের মাও। দেশে এটিই প্রথম সফল লিভার ট্রান্সপ্লান্টের ঘটনা উল্লেখ করে চিকিৎসকদের বলেন, এতে করে আধুনিক চিকিৎসায় আরেক ধাপ এগিয়ে গেলো দেশ।

কিশোরগঞ্জের ভৈরবের ২০ বছরের যুবক সিরাজুল ইসলাম যকৃতের জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে, ভারতে গিয়েছিলেন চিকিৎসার জন্য। সেখানে তাকে লিভার ট্রান্সপ্লান্ট বা যকৃৎ প্রতিস্থাপনের পরামর্শ দেয়া হয়। কিন্তু, চিকিৎসার জন্য প্রায় কোটি টাকার ভার নেয়ার সামর্থ্য ছিলো না। ছেলে সিরাজকে নিয়ে দেশে ফিরে আসেন পেশায় আদালতের পেশকার শফিকুল ইসলাম। পরে তারা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় আসেন চিকিৎসার জন্য। উদ্দেশ্য ছিল ছেলেকে যত দিন বাঁচিয়ে রাখা যায়।

চিকিৎসকরা জানান, তারা অনেক দিন লিভার ট্রান্সপ্লান্ট করার জন্য নিজেদের তৈরি করছিলেন। এই সুযোগে তারা সিরাজের বাবা-মাকে ডেকে বিনামূল্যে ট্রান্সপ্লান্টের কথা জানালে, তারা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের প্রস্তাবে রাজি হন। এর মধ্যে সিরাজের মা রাজি হন ছেলেকে নিজের লিভারের সামান্য দান করতে। এভাবে গত ২৪শে জুন সকাল থেকে একটানা ১৮ ঘণ্টা অস্ত্রোপচার করে সিরাজের লিভার সফলতার সাথে প্রতিস্থাপন করেন চিকিৎসকেরা।

শনিবার, বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাক্তার মিলন মিলনায়তনে দেশের প্রথম সফল লিভার ট্রান্সপ্লান্টের কথা জানান সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকরা। বিনামূল্য এই লিভার ট্রান্সপ্লান্ট হয়েছে উল্লেখ করে বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য জানান, এর মধ্যে দিয়ে আধুনিক, উন্নত চিকিৎসাবিজ্ঞানে আরো একধাপ এগিয়ে গেল দেশ। আর, সফল লিভার প্রতিস্থাপনে শুকরিয়া জানিয়ে সিরাজের বাব সবার দোয়া চেয়েছেন, ছেলের দ্রুত আরোগ্য লাভের জন্য।

বিএসএমএমইউতে প্রথমবার লিভার ট্রান্সপ্লান্ট কার্যক্রমে প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন বিভাগের চিকিৎসক, নার্স, ওয়ার্ডবয়সহ প্রায় ৬০ জনের একটি টিম কাজ করে।

প্রতিবেদক: ডলার মেহেদী

ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান