বৃষ্টিতে ক্ষতির মুখে রোহিঙ্গারা

টানা বৃষ্টিতে ক্ষতির মুখে উখিয়া টেকনাফে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা। পাহাড় ধসে ভেঙ্গে গেছে ক্যাম্পের অন্তত হাজার খানেক ঘরবাড়ি। মাটি চাপা পড়ে মারাও গেছেন এক রোহিঙ্গা। সেইসাথে বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে নো ম্যান্স ল্যান্ডে আশ্রয় নেয়া তিন হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গার ঘরবাড়ি।

পাহাড় ও টিলায় নরম মাটির উপর কোন রকমে দাঁড়িয়ে আছে ছোট ছোট ঘর। দূর্বল খুঁটিতে নির্মিত এসব ঘরের নিচ থেকে প্রতিনিয়ত মাটি সরে যাচ্ছে বৃষ্টির পানিতে।

গেলো তিন দিনে তীব্র বাতাসে উড়ে গেছে কুতুপালং বালুখালি ক্যাম্পের কয়েকশো ঘরের ছাউনি। আর বৃষ্টিতে ঘর ধসে এখন আশ্রয়হীন হাজারো রোহিঙ্গা পরিবার। কুতুপালং ক্যাম্পে ঘর চাপা পড়ে মারাও গেছেন এক রোহিঙ্গা নারী।

রোহিঙ্গারা বলছেন, ক্ষতির পরিমান সবচেয়ে বেশি কুতুপালং ও বালুখালি ক্যাম্পের চারটি ব্লকে।

শিগগিরই স্থায়ী সমাধান সম্ভব নয় তাই, দুর্যোগের সময় আত্মরক্ষার জন্য রোহিঙ্গাদের মাঝে বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ করা হচ্ছে বলে জানালেন শরনার্থী বিষয়ক কমিশনার।

এরইমধ্যে ক্যাম্পের ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি মেরামতে কাজ শুরু করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো।