‘কারও ভূখন্ড বাংলাদেশের দরকার নেই’

রাখাইন রাজ্যকে বাংলাদেশের মানচিত্রে জুড়ে দিয়ে রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মার্কিন কংগ্রেসম্যানের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, কারও ভূখন্ড বাংলাদেশের দরকার নেই। চীন সফর নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ধর্ষণকারীদের বিরুদ্ধে পুরুষদের সোচ্চার হওয়ার আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী ।

বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের সম্মেলন ও রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীসহ শীর্ষ নেতাদের সাথে বৈঠকের মধ্য দিয় গত এক থেকে ৫ জুলাই চীন সফর নিয়ে রেওয়াজ অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই সংবাদ সম্মেলন।

২০১৭ সালের আগস্টে ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে আশ্রয় দেওয়ার পর এটি ছিল বাংলাদেশের শীর্ষ নেতার প্রথম চীন সফর। আর সেই সফরের সময়ই মার্কিন কংগ্রেসম্যান রাখাইন রাজ্যকে বাংলাদশের সাথে জুড়ে দেওয়ার প্রস্তাব আনেন। যার কড়া জবাব দিলেন প্রধানমন্ত্রী।

গেল সপ্তাহে গ্যাসের দাম বেড়েছে এক দফা। প্রতিবাদে আধাবেলা হরতালও হয়েছে। এই প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, প্রতি ঘনমিটার এলএনজি ৬১ টাকার বেশি দামে আমদানি করে ১০ টাকা কমে বিক্রি করছে সরকার। উন্নয়নের চাকা ঘুরাত জ্বালানী তুলে ধরে তিনি বলেন খালেদা জিয়া সরকারের ভুল সিদ্ধান্তের কারণে মিয়ানমার থেক গ্যাস পাওয়ার ট্র্রেন মিস করেছে বাংলাদেশ।

সরকারি চাকরির বয়সসীমা বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন আর একের পর এক নারী-শিশু ধর্ষণের প্রতিকার নিয়ে কঠোর অবস্থানের জানান দেন প্রধানমন্ত্রী।

ক্রীড়াপ্রেমী প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্বাভাবিক প্রশ্ন ছিল ক্রিকেট বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল আসর পর্যন্ত না পৌঁছেই বাংলাদেশের দলের বিদায়, নানা সমালোচনার উল্টোস্রোতে নৌকা বাইলেন শেখ হাসিনা।

প্রতিবেদক: ফারজানা রূপা

ওয়েব সম্পাদনা: ফেরদৌসী শর্মী