ঋণ খেলাপিদের বিষয়ে আদালতের রায়ে ব্যাংক সংশ্লিষ্টদের সমর্থন

ঋণ খেলাপিদের বিষয়ে আপিল বিভাগের দেয়া রায়ের প্রতি সমর্থন জানালেন ব্যাংক সংশ্লিষ্টরা। তারা বলছেন, আদালতের এই রায়ের মধ্য দিয়ে ব্যাংকগুলোর অনাদায়ী ঋণ ও তারল্য সঙ্কট কমবে। তবে খেলাপিদের নতুন ঋণ না দেয়ার নির্দেশনার ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংকের অবস্থান জানাটা জরুরি বলেও মনে করছেন তারা।

গেলো ১৬ মে ঋণ খেলাপিদের জন্য একগুচ্ছ সুবিধা দিয়ে ব্যাংকগুলোর জন্য পরিপত্র জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক। যাতে বলা হয় কোন ঋণ খেলাপী মাত্র ২ শতাংশ ডাউন পেমেন্ট দিয়েই ১০ বছরের জন্য ঋণ পুনঃতফসিল করতে পারবেন।

সবশেষ সোমবার এক রীটের আদেশে সর্বোচ্চ আদালত জানিয়েছে ঋণ পুনঃতফসিলের সুযোগ পেলেও খেলাপীদের নতুন কোন ঋণ দেয়া যাবেনা। আপীল বিভাগের এমন রায়কে স্বাগত জানালেন ব্যাংক সংশ্লিষ্টরা।

তবে খেলাপীদের নতুন কোন ঋণ না দেয়ার সিদ্ধান্ত কতোটা কার্যকর করা যাবে তা নিয়ে অস্পষ্টতা আছে বলেও মনে করছেন তারা।

সাবেক ব্যাংকাররা বলছেন, ঋণ খেলাপিদের দেয়া সুবিধাগুলো যেনো ঢালাওভাবে কেউ না নিতে পারে সে জন্য শক্ত আইনি ব্যবস্থা ও নজরদারি বাড়ানো দরকার।

বিশ্লেষকরা বলছেন , ব্যাংক খাতে এক লাখ এগারো হাজার কোটি টাকার ওপরে অনাদায়ী ঋণ আদায়ে বাংলাদেশ ব্যাংককে আলাদা সেল গঠনের পরামর্ম দিলেন তারা।

প্রতিবেদক: কাবেরী মৈত্রেয়

ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান