বৃষ্টিতে তিন পার্বত্য জেলায় ঝুঁকির জীবন

দুই দিনের টানা বর্ষণে তিন পার্বত্য জেলায় পাহাড় ধসের আশঙ্কায়, পাদদেশে ও ঝুঁকিপুর্ণ এলাকায় থাকা জনগণকে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলেছে প্রশাসন। একদিন আগে কাপ্তাইয়ে পাহাড়ে দুইজনের মৃত্যুর ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। খোলা হয়েছে আশ্রয়কেন্দ্র। এরইমধ্যে, বন্ধ হয়ে গেছে লংগদু-রাঙ্গামাটি সড়ক যোগাযোগ।

গেল তিন দিনে টানা মাঝারি বৃষ্টির পর সোমবার দুপুরে রাঙামাটি শহরের কলাবাগানের মালিকলোনী এলাকায় পাহাড়ের একটি অংশ ধসে পড়ে। এসময় মাটির নিচে চাপা পড়ে মারা যায় ৩ বছরের শিশু সূর্য্য মল্লিক ও একই এলাকার বাসিন্দা তাহমিনা বেগম। আহত হন আরো দুজন।

প্রশাসন বলছে, বৃষ্টি শুরুর প্রথম থেকেই পাহাড়ের নিচে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোতে বসবাস করা মানুষদের সতর্ক করা হয়েছিলো। কিন্তু তারা কেউই আশ্রয় কেন্দ্রে যাননি। আর ওইসব এলাকার মানুষ বলছেন, বিকল্প থাকার জায়গা না থাকায় বাধ্য হয়ে তারা পাহাড়ের নিচেই থাকছেন।

এদিকে জেলা প্রশাসক জানিয়েছেন, পৌরসভাসহ ১০টি উপজেলায় প্রায় ১৬হাজার মানুষ ঝুঁকিতে রয়েছেন। আর তাই রাঙামাটি শহরে ২১টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে।

২০১৭ সালে জেলায় ভয়াবহ পাহাড় ধ্বসের ঘটনায় ৫ জন সেনা সদস্য সহ ১২০ জন নিহত হয়। এর পরের বছরই নানিয়ারচর উপজেলায় মৃত্যু আরো ১১ জনের।

প্রতিবেদক: উচিংছা রাখাইন এবং মনিরা কাজরী

ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান