পদ্মাসেতু চালু ২০২০ সালের ডিসেম্বর

চলতি মাসেই শেষ হচ্ছে পদ্মাসেতুর পিলার নির্মাণ কাজ। এরপর বাকি থাকছে শুধু স্প্যান বসানো আর রেল ও সড়ক পথের নির্মাণ কাজ। এরইমধ্যে ১৪টি স্প্যান বসানোর মধ্যে দিয়ে সেতুর দুই কিলোমিটার পথ দৃশ্যমান হয়েছে। সব মিলিয়ে শেষ হয়েছে সেতুর ৮১ শতাংশ কাজ। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে সেতু চালুর লক্ষ্যে সব কাজ চলছে, জানালেন প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম।

গেল তিন মাসে ৪টি স্প্যান বসানোর মধ্যে দিয়ে পদ্মা সেতুর বিশালতা এখন আরো স্পষ্ট। পিলারের নকশাজনিত সমস্যা কেটেছে অনেক আগেই। অশান্ত পদ্মাকে বশ মানিয়ে তাই একে একে বসছে সেতুর পিয়ার।

এরইমধ্যে প্রায় সোয়া ছয় কিলোমিটার সেতুর এক তৃতীয়াংশ দৃশ্যমান হয়েছে। চলতি মাসেই ৪২টি পিয়ার বসানোর কাছ শেষ হবে বলে জানালেন প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম।

সব মিলে সেতু নির্মাণের কাজ ৮১ শতাংশ শেষ। আর পুরো প্রকল্পের কাজ শেষ হয়েছে ৬৯ শতাংশ। বাকি কাজ ২০২০ সালের মধ্যেই শেষ করার টার্গেট নিয়ে দ্রুত এগিয়ে চলেছে প্রকল্পের নানামুখী কর্মযজ্ঞ।

তবে পদ্মার দুই পাড়ে নদী শাসনের কাজ কিছুটা পিছিয়ে আছে। এখন পর্যন্ত এই কাজ এগিয়েছে ৫৯ শতাংশ। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজটি শেষ করতে এই মাসেই আসছে সর্বাধুনিক ড্রেজার মেশিন। যা কাজের গতি আরো বাড়িয়ে দেবে।

পানির গতি সেকেন্ডে ৩ মিটারের বেশি হলে এই ক্রেন দিয়ে বিশাল স্প্যান টেনে নেয়া যায় না। বর্ষা মৌসুম তাই পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে এই মাসেই আরো একটি স্প্যান বসানো হবে বলেও জানালেন এই কর্মকর্তা।

প্রতিবেদক: নয়ন আদিত্য

ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান