বন্যার তোড়ে ঘরহারা কুড়িগ্রামের প্রায় পঞ্চাশ হাজার মানুষ

উত্তর-মধ্যাঞ্চলে বন্যার বিস্তারের মধ্যেই, গেল চব্বিশ ঘন্টায় বেড়েছে, ধরলা, ব্রহ্মপুত্র ও দুধকুমার নদীর পানি। ফলে, বন্যার তোড়ে নতুন করে ঘর ছেড়েছেন কুড়িগ্রামের প্রায় পঞ্চাশ হাজার মানুষ। আর, হুমকিতে পড়েছে কমপক্ষে পাঁচটি বাঁধ।

বন্যার পানি মানেই ঘর হারানোর হুমকি, এমন অবস্থা কুড়িগ্রামের চিলমারির বেপারিপাড়ার তিন হাজার মানুষের। পানিবন্দি হয়ে থাকা মানুষগুলো আছে পানি আর খাবার সংকটে।

এরই মধ্যে দূর্গতদের কাছে ত্রান পৌছে দেয়া শুরু করেছে প্রশাসন। অতিরিক্ত ১০ লাখ টাকা সহায়তা দরকার বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

রোববার থেকে ব্রহ্মপুত্রের পানি ৩৭ সেন্টিমিটার বেড়ে ১০৫, ধরলায় ৩৫ সেন্টিমিটার বেড়ে ১১০ এবং দুধকুমোর ৭৫ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপদসীমার ১১০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

নাগরাকুড়া টি বাঁধের ৬০ মিটার অংশ তলিয়ে গেছে। যা মেরামতের কাজ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। উপজেলার সারডোপ বান্টুর ঘাট, উলিপুরের চর বজড়া, রাজারহাটের গাবুর হেলান, চিলমারির হরিপুর বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ এরইমধ্যে হুমকিতে পড়েছে।

প্রতিবেদক: রাজু মুস্তাফিজ এবং নয়ন আদিত্য

ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান