মেক্সিকোর মাদক সম্রাট গুজমানের যাবজ্জীবন

মেক্সিকোর মাদ্রক সম্রাট হোয়াকিন ‘এল চ্যাপো’ গুজমানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ অতিরিক্ত ৩০ বছরের জেল দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আদালত। এছাড়াও প্রায় তেরশ কোটি মার্কিন ডলার জরিমানও গুনতে হবে।
৬২ বছর বয়সী গুজমান গত ফেব্রুয়ারিতে নিউ ইয়র্কের ফেডারেল কোর্টে মাদক ও অর্থ পাচারসহ মোট ১০টি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন।

এর আগে ২০১৫ সালে গুজমান মেক্সিকোর সুরক্ষিত কারাগার থেকে টানেল খুঁড়ে পালিয়েছিলেন। দেশটির আইন শৃংখলা বাহিনী পরে আবার তাকে ধরে ফেলে। পরে ২০১৭ সালে গুজরানকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানায়, গুজমান তার শত্রুদের নির্যাতন এবং হত্যা করতেন। বিচার চলাকালিন সময়ে এ কথা জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। গুজমান তার অপরাধ বিস্তার করে আমেরিকা মহাদেশ জুড়ে। এ মাদক সম্রাটের মাদক পাচার ও অপরাধ চক্র ‘সিনালোয়া কার্টেল’ বিভিন্ন দেশে কোকেন, হেরোইন, মারিজুয়ানা ও মেথাম্ফেটামাইন পাচারের জন্য কুখ্যাত।

বুধবার (১৭ জুলাই) ব্রুকলিনের আদালতকক্ষে সাজার রায় ঘোষণার আগে এক দোভাষীর মাধ্যমে গুজমান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে তাকে আটকে রাখা দিনে ২৪ ঘণ্টাই মানসিক নিপীড়ন এবং মানবেতর অবস্থায় রাখার সামিল। তিনি ন্যায়বিচার পাননি এবং তার সঙ্গে খারাপ আচরণ করা হয়েছে বলেও গুজমান অভিযোগ করেছেন।

গুজমান যে সব অপরাধ করেছেন তার বিচারে ন্যূনতম সাজা হিসাবেই তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। বাড়তি ৩০ বছরের সাজা তিনি পেয়েছেন আগ্নেয়াস্ত্রের বেআইনি ব্যবহারের কারণে।

ওয়েব সম্পাদনা : জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়