গুজবে গণপিটুনিতে ছোট্ট তুবা মা হারা

সন্তানকে ভর্তির জন্য স্কুলের খোঁজখবর নিতে গিয়ে, গণপিটুনিতে প্রাণ গেলো তাসলিমা বেগম রেনুর। ছেলে ধরার গুজবে, পূর্ব বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে, গণপিটুনির শিকার হন এই মা। অথচ, তার সাড়ে তিন বছরের সন্তান তুবা…দিন গুনছে মায়ের হাত ধরে স্কুলে যাবে বলে।

আসছে বছর স্কুলে ভর্তি হবে তুবা। এরই মধ্যে বাংলা বর্ণমালার সাথে পরিচয়ও ঘটেছে তার। আধো আধো কন্ঠে বলতে পারে বেশ কয়েকটা কবিতাও।

তাইতো তুবাকে ভাল একটা স্কুলে ভর্তির স্বপ্নই দেখতো মা তাসলিমা বেগম রেনু। বাসা থেকে বের হওয়ার সময় সেই আলাপই প্রতিবেশির সাথে।

কিন্তু কে জানতো বাড্ডার সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয়ের সামনেই অবসান হবে জীবনের সব স্বপ্নের। স্কুল প্রাঙ্গনে ঢুকতেই কে-বা কাহারা ছেলে ধরা বলে রব তুললে চড়াও হয় জনতা। কান চিলে নেয়ার ক্ষোভে বোধ বুদ্ধি জলঞ্জলি দিয়ে বধ করে এক মমতাময়ী মায়ের জীবন।

ছোট্ট তুবা এখনো অপেক্ষার প্রহর গুনছে আসছে বছর আট দশটা শিশুর মতো মায়ের হাত ধরে স্কুলে যাবে।

কিন্তু যারা মনুষ্যত্বহীনভাবে সন্তানকে মা হারা করলো তাদের বিবেক কি জাগ্রত হবে কোনদিন?