বিশ্বের শেষ প্রান্তের দৈত্যকার গহ্বরের খোঁজ মিলেছে

রাশিয়ার উত্তরাঞ্চলের শেষ সীমানায় একটি দৈত্যকার গহ্বরের খোঁজ মিলেছে। জায়গাটিকে পৃথিবীর শেষ প্রান্ত হিসেবে বলা হয়। ক্যামেরায় তোলা ছবিতে গহ্বরটির ব্যাসার্ধ প্রায় ১০০ মিটার ধরা পড়েছে।

দেশটির বভেনস্কিকে প্রাকৃতিক গ্যাসের খনির কাছ এই দৈত্যাকৃতির গহ্বরের সন্ধান পাওয়া যায়। স্থানীয় একটি টিভি চ্যানেলে এ গহ্বরকে ‘পৃথিবীর ধ্বংসের সূচনা’ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে।

এদিকে কী কারণে এমন দৈত্যকার গহ্বরের সৃষ্টি হয়েছে সে বিষয়ে বিজ্ঞানীদের কাছে কোনো স্পষ্ট ধারণা নেই। তারা মনে করছেন, মাটির নিচে কোনো বিস্ফোরণে জন্য এ ধরনের গহ্বর তৈরি হতে পারে।

আবার কেউ কেউ দাবি করছেন, কোনো উল্কাপিণ্ডের পতনের ফলেই এই বিশাল গহ্বরের সৃষ্টি হয়েছে। যদিও বিজ্ঞানীরা এই জল্পনা একদমই উড়িয়ে দিয়েছেন।

এরই মধ্যে সাইবেরিয়া ও রাশিয়া গহ্বর সম্পর্কে জানার জন্য গবেষক দল পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই গবেষক দলে সাইবেরিয়ার ‘স্টাডি অব দ্যা আর্কটিক’ ও রাশিয়ার একাডেমি অব সায়েন্সের বিজ্ঞানীরা থাকবেন।

ওয়েব সম্পাদনা : জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়