দেশের ৫৩ হলে চলবে নুসরাত ফারিয়ার ‘বিবাহ অভিযান’

আসছে শুক্রবার মুক্তি পাচ্ছে নুসরাত ফারিয়া অভিনীত কলকাতার ছবি ‘বিবাহ অভিযান। এদিন বাংলাদেশের ৫৩টি প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি মুক্তি পাবে বলে জানিয়েছে আমদানীকারক প্রতিষ্ঠান তিতাস কথাচিত্র কর্তৃপক্ষ। বিরসা দাশগুপ্ত পরিচালিত এই সিনেমায় মূল ভূমিকায় অভিনয় করেছেন নুসরাত ফারিয়া। এছাড়াও রয়েছেন অঙ্কুশ হাজরা, রুদ্রনীল ঘোষ, সোহিনী সরকার, প্রিয়াঙ্কা সরকার এবং অনির্বাণ ভট্টাচার্য।

সিনেমাটি প্রসঙ্গে নুসরাত ফারিয়া বলেন, হাস্যরস নির্ভর এই চলচ্চিত্রটি সিনেমা হলে দমফাটানো হাসির উপলক্ষ তৈরি করে দেবে। দেশে আমার ভক্তদের সঙ্গে সিনেমাটি একত্রে দেখবো বলে অপেক্ষায় ছিলাম। চলচ্চিত্রপ্রেমী ও ভক্তদের সঙ্গে একত্রে শীষ বাজিয়ে আর হইহুল্লোড় করে হল মাতিয়ে রেখে সিনেমা দেখার তর সইছে না।

বিরসা দাশগুপ্ত বলেন, চলচ্চিত্র নির্মাতা হিসেবে সবসময়ই একটি স্বপ্ন ছিলো সকল বাংলাভাষীর বিনোদনের খোরাক তৈরি করবো। বাংলাদেশে ‘বিবাহ অভিযান’ এর মুক্তির মধ্য দিয়ে সে স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে।

ছবিটির গল্পে দেখা যাবে, দুই মানিকজোড় বন্ধু অনুপম (অঙ্কুশ) এবং রজত (রুদ্রনীল) এর জীবনে ঘটে চলা ঘটনাগুলোকে কেন্দ্র করেই নির্মাণ করা হয়েছে ‘বিবাহ অভিযান’। অনুপম, কিছুটা ঠাণ্ডা প্রকৃতির নিপাট ভদ্রলোক। তার বিয়ে হয় ডানপিটে রাই (নুসরাত) এর সঙ্গে। অপরদিকে বেশ চটপটে আর বাকপটু বিতার্কিক রজত পরিবারের পছন্দে বিয়ে করে একেবারেই বিপরীত মেরুর মেয়ে মায়া (সোহিনী)কে।

বিয়ের পাট চুকতে না চুকতেই দাম্পত্য জীবনের নানা ঘাত-প্রতিঘাত হাড়েহাড়ে টের পায় দুই বন্ধু। আর এই অবস্থা থেকে মুক্তি খোঁজার লক্ষ্যেই যাত্রা শুরু করে হাস্যরসে পরিপূর্ণ এক অভিযান। স্বামী-স্ত্রী এর মাঝে চোর-পুলিশ খেলার মজাদার সব দ্বন্দ্ব আর কৌতুককর ঘটনাবহুল এক গল্প থেকেই নির্মিত হয়েছে ছবিটি।

ওয়েব সম্পাদনা : জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়