ভার বইতে পারছে না করতোয়া

ভারী পণ্যবাহী পরিবহন পারাপার হওয়ায় ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে পঞ্চগড়ের করতোয়া সেতু। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেতুর সাথে সংযোগ সড়কটিও। তবু অস্থায়ীভাবে মেরামত করে এই সেতু দিয়েই চলছে সব যানবাহন। এলাকার মানুষ বলছেন, সেতুর ওপর অতিরিক্ত চাপ বন্ধ না হলে যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় কোনো দুর্ঘটনা।

পঞ্চগড় জেলা শহরের সাথে সারা দেশের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম এই করতোয়া সেতু। শহরের প্রবেশ মুখে করতোয়া নদীর উপর ২৭৫ মিটার সেতুটি তৈরি হয় ১৯৮৮ সালে। এরপর থেকে মাঝে মাঝে অস্থায়ীভাবে হয়েছে এর সংস্কার।

পাথর আর বালির জন্য খ্যাত পঞ্চগড় থেকে পুরনো এই সেতুর ওপর দিয়েই চলে ভারী ট্রাকসহ সব যানবাহন। তার ওপর নেপাল আর ভুটান থেকে আসা পাথরবাহী গাড়িগুলো বাংলাবান্ধা স্থলবন্ধর হয়ে এই সেতুর ওপর দিয়ে যায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। হরদম ব্যস্ত এই সেতুটি তাই পিচ উঠে খানাখন্দে হয়ে উঠেছে ঝুঁকিপূর্ণ।

ধারণ ক্ষমতার বেশি এসব যানবাহনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেতুর ১৪ কিলোমিটার পর্যন্ত সংযোগ সড়ক। তৈরি হয়েছে ছোট বড় গর্ত। যে কারণে প্রতিদিনই ঘটছে দুর্ঘটনা।

দুর্ভোগের কথা স্বীকার করেছেন সড়ক বিভাগের এক কমকর্তা। সেতু এবং সড়ক রক্ষায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানিয়েছেন তিনি।

জেলার মানুষ বলছেন, দীর্ঘদিন ধরে অস্থায়ী সংস্কারের মাধ্যমে টিকে আছে করতোয়া সেতু।তাদের দাবি বড় কোনো দুর্ঘটনার আগেই হোক স্থায়ী সংস্কার।

প্রতিবেদক: রফিকুল ইসলাম এবং মনিরা কাজরী
ওয়েব সম্পাদনা: ধ্রুব হাসান