শিগগিরই অবৈধ রিকশা উচ্ছেদের ঘোষণা সাঈদ খোকনের

রাজধানীর প্রধান তিনটি সড়কে রিকশা বন্ধের সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছে যানজট নিয়ন্ত্রণে গঠিত কমিটি। তবে, পারাপারের জন্য এসব সড়কের সংযোগ মোড়ে রিকশা চলতে পারবে। কমিটির

প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দিতে চান রিকশাচালকেরা

রাজধানীর তিনরুটে রিকশা চলাচল বন্ধের প্রতিবাদে ২য় দিনের মতো রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন চালকরা। সকাল থেকে কুড়িল-সায়েদাবাদ সড়ক অবরোধ করেন তারা। এ সময়

তিন সড়কে বন্ধ রিকশা, বেড়েছে ভোগান্তি

রাজধানীর প্রধান দুই রুটের তিন সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। রোববার সকাল থেকে গাবতলী থেকে আজিমপুর, সায়েন্সল্যাব থেকে শাহবাগ এবং বাড্ডা থেকে সায়েদাবাদ

২২ লাখ রিকশাচালক ও তাদের ওপর নির্ভর করে বাঁচা ১ কোটি মানুষের খবর কি?

এ শহরে ৪০ শতাংশ মানুষ যাতায়াতের জন্য নির্ভরশীল রিকশার ওপর। আবার এ যানের প্রতিটি প্যাডেলে চাপের ওপর ভর করেই চলে রিকশাচালকদের জীবন-জীবিকা, অন্ন-বস্ত্র। রাজধানীতে

রিকশাহীন সড়কে দুর্ভোগের দুঃশ্চিন্তায় যাত্রীরা

ঝিনাইদহের শহিদুল মিয়া। গেলো চারবছর ধরে রামপুরার এই সড়কে রিকশা চালান। রাত কাটান রামপুরার একটা রিকশা গ্যারেজে। আর পরিবার থাকেন ঝিনাইদহে। তার আয়ের একটা

বিকল্প ও পুনর্বাসন ছাড়াই রিকশা বন্ধ

যানজট কমাতে রাজধানীর প্রধান সড়ক থেকে পর্যায়ক্রমে রিকশা তুলে দেয়া হবে। ৭ জুলাই থেকে কুড়িল-রামপুরা-সায়েদাবাদ ও গাবতলী-আসাদগেট-আজিমপুর, সায়েন্সল্যাব-শাহবাগ সড়কে রিকশা চলতে দেয়া হবে না।