ব্রেকিং নিউজ:
ফুলবাড়ি ট্রাজেডির ৫বছর
নিউজ ডেস্ক    আগষ্ট ২৬, ২০১২, রবিবার,     ১০:৩২:৪৮

 

২০০৬ সালের এই দিনে দিনাজপুরের ফুলবাড়িতে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা খনি প্রকল্প বাতিলসহ কয়েক দফা দাবিতে বিক্ষোভ করে এলাকার মানুষ। সেদিন পুলিশ ও বিডিআর এর গুলিতে মারা যান ৩ জন। আহত হন প্রায় ২ শতাধিক মানুষ।
ফুলবাড়ী আন্দোলনে নিহতদের স্মরণে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছে তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি। একই সাথে তারা গ্লোবাল কোল ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিকে বহিষ্কারসহ সাত দফা দাবি জানিয়েছেন।
রোববার সকালে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর সাত দফা দাবি তুলে ধরেন জাতীয় কমিটির নেতারা। তারা বলেন, ২০০৬ সালে সরকার ৯৪ শতাংশ মালিকানা দিয়ে সেসময়ের এশিয়া এনার্জি বর্তমান জিসিএমের সাথে চুক্তি করে। একই সাথে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনের সিদ্ধান্ত হয়। এর বিরুদ্ধে ২৬ আগস্ট ফুলবাড়ীবাসীর আন্দোলনের মুখে গুলি চালানো হলে আমিনুল, সালেকিন ও তরিকুল মারা যান। গুলিবিদ্ধ হন ২০ জন। এরপর থেকে জাতীয় কমিটি দিবসটি পালন করছে।
দীর্ঘ দিন ধরে দিনাজপুরের ফুলবাড়ির মানুষ স্থায়ী সম্পদ নষ্ট করে জনবহুল জায়গায় উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা খনি প্রকল্প এবং বিদেশী কোম্পানি এশিয়া এনার্জিকে ফুলবাড়ি থেকে প্রত্যাহারের দাবি করে আসছিল ।
কিন্তু কোনো সমাধান না হওয়ায় সেদিন সকাল থেকেই উপজেলার ঢাকা মোড়ে ফুলবাড়ি,বিরামপুর,নবারগঞ্জ ও পার্বতীপুর উপজেলার হাজার হাজার মানুষ জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করে।
নিহত ব্যক্তিদের পরিবারগুলো স্বজন হারানো বেদনা নিয়ে এখনও মানবেতর জীবন যাপন করছে। তারা জানান, অনেক প্রতিশ্রুতির কথা বলা হলেও প্রতি বছর শুধু এই দিন ছাড়া তাদের কেউ খবর রাখে না।
সরকারের দেয়া প্রতিশ্রুতির মেয়াদ পার হলেও এখনও দাবি বাস্তবায়নের জন্য সংগ্রাম করে জাচ্ছেন আন্দোলনকারী নেতারা।
যে বিদেশী কোম্পানির বিরুদ্ধে আন্দোলন করতে গিয়ে এখানকার মানুষ জীবন দিয়েছে সেই এশিয়া অফিস এখনও ফুলবাড়ি থেকে তুলে নেয়া হয়নি।

এ. বি./এ. আর/এম. এস./১২.৩২
বিভাগ: প্রধান সংবাদ    দেখা হয়েছে ৯৩৪ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :