ব্রেকিং নিউজ:
গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বেড়েছে ১৫ শতাংশ
নিউজ ডেস্ক    সেপ্টেম্বর ২০, ২০১২, বৃহস্পতিবার,     ০১:৪৩:৩৪

 

বিদ্যুতের দাম গ্রাহক পর্যায়ে প্রায় ১৫ শতাংশ এবং বেশী সরবরাহের ক্ষেত্রে ১৭ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) চেয়ারম্যান সৈয়দ ইউসুফ হোসেন নতুন করে বিদ্যুতের এই দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেন এবং চলতি মাসের (সেপ্টেম্বর) ১ তারিখ থেকে তা কার্যকর করার সিদ্ধান্তের কথা জানান।
ফলে আগামী মাসেই নতুন হারে শোধ করতে হবে বিদ্যুতের বিল। দাম বাড়ানোর পাশাপাশি আবাসিক বিদ্যুৎ ব্যবহারের বিল কাঠামোতে ধাপ বা স্ল্যাবের সংখ্যাকে তিন থেকে ছয়টি করা হয়েছে।কৃষিতে এবং শিল্পে ব্যবহারের জন্য ইউনিট প্রতি বিদ্যুতের দাম প্রায় ১১ শতাংশ ও ১৫ শতাংশ বেড়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।
নতুন করে সাজানো ছয়টি স্ল্যাবে পল্লী বিদ্যুৎ ও অন্যান্য বিতরণকারী সংস্থার গ্রাহকদের জন্য বিদ্যুতের নতুন মূল্যহার হল-
বিদ্যুতের ব্যবহার পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহকের খরচ (প্রতি ইউনিট) অন্যান্য বিতরণকারী সংস্থার গ্রাহকের খরচ (প্রতি ইউনিট)
ধাপ -১ ০ থেকে ৭৫ ইউনিট পর্যন্ত ৩.৬৬ টাকা ৩.৩৩ টাকা
ধাপ -২ ৭৬ থেকে ২০০ ইউনিট পর্যন্ত ৪.৩৭ টাকা ৪.৭৩ টাকা
ধাপ -৩ ২০১ থেকে ৩০০ ইউনিট পর্যন্ত ৪.৫১ টাকা ৪.৮৩ টাকা
ধাপ -৪ ৩০১ থেকে ৪০০ ইউনিট পর্যন্ত ৭.১০ টাকা ৪.৯৩ টাকা
ধাপ -৫ ৪০১ থেকে ৬০০ ইউনিট পর্যন্ত ৭.৪০ টাকা ৭.৯৮ টাকা
ধাপ -৬ ৬০০ ইউনিটের বেশি ৯.৩৮ টাকা ৯.৩৮ টাকা
দাম বাড়ানোর কারণ হিসেবে সংবাদ সম্মেলনে ইউসুফ হোসেন বলেন, “বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) পাইকারি বিদ্যুতের দাম ৫০ শতাংশ বাড়িয়ে প্রতি কিলোওয়াট ঘণ্টা ৬.০৩ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছিল। আমরা তা প্রায় ১৭ শতাংশ বাড়িয়ে ৪.০২ টাকা থেকে ৪.৭০ টাকা করেছি। এর পরও চলতি অর্থবছরে বিদ্যুৎ খাতে আমাদের ভর্তুকি গুনতে হবে ৩ হাজার ৮৫০ কোটি টাকা। ”
মহাজোট সরকারের সময়ে এর আগে পাঁচ দফা বিদ্যুতের দাম বেড়েছিল। সবশেষ গত ২৯ মার্চ বিদ্যুতের পাইকারি ও খুচরা দাম প্রতি ইউনিটে যথাক্রমে গড়ে ২৮ পয়সা এবং ৩০ পয়সা করে বাড়িয়ে ৫.৩২ টাকা করা হয়েছিল।১ মার্চ থেকে তা কার্যকর করা হয়।
এরপর গত জুন মাসে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড পাইকারি এবং খুচরা কোম্পানি ভেদে ৫০ থেকে ৫৬ শতাংশ পর্যন্ত দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দেয় ¬¬। এ প্রস্তাবের ওপর ১৬ জুলাই বিইআরসিতে গণশুনানি হয়।এরপর গত ২৬ জুলাই বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর জন্য সংবাদ সম্মেলন ডেকেও পরে তা বাতিল করেছিল বিইআরসি।
এদিকে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তকে সরকারের ‘স্বেচ্ছাচারী’ আখ্যা দিয়ে অবিলম্বে তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি।
বৃহস্পতিবার রাতে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক বিবৃতিতে বলেন, “জনস্বার্থকে তাচ্ছিল্য করে সরকার দফায় দফায় বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করে চলেছে। ৬ষ্ঠ দফা বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির এই সিদ্ধান্ত গণবিরোধী।’’

এম. এস./২০.৩৫
বিভাগ: প্রধান সংবাদ    দেখা হয়েছে ৫৫৩ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :