ব্রেকিং নিউজ:
কোনো অসাংবিধানিক দাবি মানবে না আ. লীগ: হানিফ
নিউজ ডেস্ক    সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১২, সোমবার,     ১০:৩৯:১৬

 

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, কোনো ধরণের অসাংবিধানিক দাবির কাছে আওয়ামী লীগ মাথা নত করবে না। নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা নিয়ে বিরোধী দলের কোনো প্রস্তাব থাকলে তা সংসদে এসেই জানাতে হবে।
প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারি হানিফ সোমবার বিকেলে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।
রোববার দিনাজপুরে জনসভায় বেগম খালেদা জিয়ার বক্তব্যের জবাবে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে হানিফ বলেন, ‘কোনো অসাংবিধানিক ও অন্যায্য দাবি আওয়ামী লীগের কাছ থেকে আদায় করা যাবে না। হুমকি-ধমকির দিন মনে হয় অনেক আগে শেষ হয়ে গেছে।’
নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে এখনো আলোচনা সম্ভব জানিয়ে হানিফ বিরোধী দলের প্রতি আহ্বান জানান তাদের প্রস্তাব সংসদে উত্থাপন করতে। তিনি বলেন, ‘বিরোধী দলকে আস্থায় আনার জন্য প্রধানমন্ত্রী অর্ন্তবর্তীকালীন সরকারের কথা বলেছেন। এ নিয়ে আলোচনার দ্বার এখনো খোলা রয়েছে। তাদের কাছে কোন রূপরেখা থাকলে তা তারা জাতীয় সংসদে এসে উত্থাপন করতে পারে।’
আগাম নির্বাচনের সম্ভাবনা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হানিফ বলেন, “আওয়ামী লীগ আগাম নির্বাচনের কথা ভাবছে না। নির্ধারিত সময়েই এবং সংবিধানের আলোকেই আাগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।”
দিনাজপুরে বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়ার বক্তব্যকে ভিত্তিহীন, মিথ্যা এবং বানোয়াট হিসেবে উল্লেখ করে হানিফ বলেন, “১৮ দলের সমাবেশে তিনি যে ভাষণ দিয়েছেন, তা মিথ্যাচারে পূর্ণ। আমরা এ ধরনের কুৎসিত, বিদ্বেষপ্রসূত, ভিত্তিহীন, ও বানোয়াট কথামালাকে ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করছি। একইসাথে এসব বিভ্রান্তিকর আচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি।
মহাজোট সরকারের দুর্নীতি নিয়ে বেগম জিয়ার বক্তব্যের জবাবে হানিফ বলেন, “বিএনপি জামায়াত জোট রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকার সময় দেশে সীমাহীন লুটপাট হয়েছিল এবং তিনি দুনীতির মাধ্যমে অর্জিত অর্থকে সাদা করেছেন। তার দুই ছেলের বিরুদ্ধে দেশে এবং বিদেশে মানি লন্ডারিং মামলা হয়েছে। তারা বিদেশে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।”
তিনি বলেন, বেগম জিয়া জঙ্গি উত্থানে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে বিষোদাগার করেছেন। একথা দেশবাসীর মানসপট থেকে মুছে যায়নি যে, বিএনপি জামায়াত জোট সরকারের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটেছিল। জঙ্গি আব্দুর রহমান ও বাংলা ভাই বিএনপি-জামায়াতের সৃষ্টি।
বিদ্যুৎ খাত নিয়ে খালেদার বক্তব্যের সমালোচনা করে হানিফ বলেন, বেগম জিয়ার শাসনামলে এক মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়েনি, বরং কমেছিল। হাজার হাজার কোটি টাকা বিদ্যুৎ খাতে তারা লুটপাট করেছিল। খাম্বা নির্মাণের নামে কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছিল।
বিশ্বব্যাংক পদ্মাসেতুতে অর্থায়নে ফেরত আসতে রাজি হওয়ায় বিএনপি নেতারা মনোকষ্টে ভূগছেন এমন মন্তব্য করেন মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, “পদ্মা সেতু নিয়ে বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার পরও বিশ্ব ব্যাংক ফিরে আসায় উনি (খালেদা জিয়া) দুঃখ পেয়েছেন। উনি ভাবতে পারেননি যে, বিশ্ব ব্যাংক ফিরে আসবে।”
সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এডভোকেট আফজাল হোসেন, উপ-দফতর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম আমিন, এনামুল হক শামীম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এম. এস./ ২২.২৪
বিভাগ: প্রধান সংবাদ    দেখা হয়েছে ১২৩৪ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :