ব্রেকিং নিউজ:
জাতীয় প্রবৃদ্ধির হার ৬ শতাংশে নেমে যেতে পারে; এডিবির আশঙ্কা
নিউজ ডেস্ক    অক্টোবর ০৩, ২০১২, বুধবার,     ০৭:৩১:১৩

 

চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতা জাতীয় অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক-এডিবি। চলতি অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধির হার ৬ শতাংশে নেমে যাতে পারে বলেও আশঙ্কা জানিয়েছে এই উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানটি।
বুধবার দুপুরে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এডিবি কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে সংস্থাটির প্রধান আবাসিক অর্থনীতিবিদ মোহাম্মদ জাহিদ হোসেন জানান, চলতি অর্থবছরে জিডিপি'র লক্ষ্যমাত্রা ৭.২ শতাংশ নির্ধারণ করলেও তা ৬ শতাংশের বেশি হবে না। কারণ, কৃষি ছাড়া অন্য সব খাতে প্রবৃদ্ধি হ্রাস পাওয়ায় কাঙ্খিত মাত্রায় জিডিপি'র প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব নয়।
এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুট- ২০১২ প্রতিবেদন প্রকাশের অনুষ্ঠানে তিনি আরো জানান, রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হলে আর্থিক ব্যবস্থাপনায় চাপ বাড়বে বলে মনে করে এডিবি। এতে করে পরিকল্পিত ও বৈদেশিক সহায়তাপুষ্ট বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের সমস্যা হবে।
তবে, সবকিছুই নির্ভর করছে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার উপর। এডিবি আশংকা করছে, চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতা চলতি অর্থবছরে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে বিঘ্ন ঘটাতে পারে এবং দেশের সার্বিক অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।
ম্যানিলাভিত্তিক ঋণদাতা সংস্থাটির প্রতিবেদনে পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে, খাদ্যমূল্যস্ফীতি কমলেও জ্বালানি তেল ও বিদ্যুতের দাম বাড়ায় খাদ্যবর্হিভূত মূল্যস্ফীতি বৃদ্ধি পাবে। কৃষিখাত ছাড়া অন্য সব খাতেই প্রবৃদ্ধি কম হওয়ায় প্রবৃদ্ধি হ্রাস পাওয়ায় কাঙ্খিত মাত্রায় জিডিপি'র প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব নয়।
এছাড়া ব্যাংক থেকে অতিরিক্ত ঋণ নেয়ার ব্যাপারে সরকারকে নিরুৎসাহিত করেছে এডিবি। নইলে আর্থিক খাতের শৃঙ্খলা নষ্ট হবে বলে মনে করে আন্তর্জাতিক এ ঋণ সংস্থাটি।
বাংলাদেশের অর্থনীতির সম্ভাব্য গতিপ্রকৃতি তুলে ধরে জাহিদ হোসেন বলেন, ইউরো জোনে অর্থনৈতিক সংকটের কারণে ইউরোপের বাজারে বাংলাদেশের রপ্তানি কমে যেতে পারে। তবে প্রবাসী আয় বা রেমিট্যান্স বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেছে এডিবি।
সংবাদ সম্মেলনে এডিবির বাংলাদেশ প্রতিনিধি তেরেসা খো উপস্থিত ছিলেন।

ডিম. এস./এম. এস./১৯.১০
বিভাগ: অর্থযোগ   দেখা হয়েছে ৭১২ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :