ব্রেকিং নিউজ:
জেল হত্যা দিবস; ৩৭ বছরেও বিচার হয়নি দোষীদের
নিউজ ডেস্ক    নভেম্বর ০৩, ২০১২, শনিবার,     ০৯:৫৫:৫৯

 

কলঙ্কিত জেল হত্যা দিবস আজ। মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনাকারী বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ, মন্ত্রিসভার সদস্য ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী এবং এ.এইচ.এম কামরুজ্জামানকে ১৯৭৫ সালের এইদিনে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি অবস্থায় নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। কারাগারের নিরাপদ আশ্রয়ে থাকা অবস্থায় বর্বরোচিত এ হত্যার ঘটনা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল।
সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমদ, এম মনসুর আলী ও এএইচএম কামরুজ্জামান। দেশের সকল আন্দোলনেই তারা ছিলেন বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর। মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতিতে অসীম সাহসিকতায় নেতৃত্ব দেন তারা। গঠন করেন মুজিবনগর সরকার।
এই জাতীয় নেতাদের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হয় দেশের মানুষ। ঘরে ঘরে তৈরি হয় দূর্গ, পাল্টা আঘাত হানে শত্রুর উপর। নয় মাস যুদ্ধের পর স্বাধীনতা পায় বাংলাদেশ।
পাকিস্তান থেকে মুক্ত হয়ে বঙ্গবন্ধু ফিরে আসার পর শুরু হয় নতুন এক দেশ গড়ার যুদ্ধ। কিন্তু স্বাধীনতা বিরোধীদের ষড়যন্ত্রে ৭৫-এর ১৫ আগস্ট নিহত হন বঙ্গবন্ধু। এরপর গ্রেফতার করা হয় জাতীয় চার নেতাকে। পরে তিন নভেম্বর জেলখানার ভেতর নির্মমভাবে তাঁদেরকে হত্যা করে ঘাতকরা।
ইতিহাসের জঘন্যতম এই হত্যাকাণ্ডের বিচারে নিম্ন আদালতে তিন জনের মৃত্যুদণ্ড আর ১২ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়। তবে ফাঁসির দুই আসামীসহ ছয় জনকে খালাস দেয় হাইকোর্ট। বিচারিক আদালতের রায় বহাল রাখার আবেদন জানিয়ে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে এরইমধ্যে আপিল করেছে সরকার।
এদিকে হত্যাকান্ডের ৩৭ বছর পার হবার পরও বিচার কাজ শেষ না হওয়ায় ক্ষোভ জানিয়েছেন বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলামের স্বজনেরা। রক্তঝরা সেই দিনটির কথা আজো ভুলতে পারেনি স্বজনেরা। সেদিন শুধু নজরুল ইসলামকে নির্মমভাবে হত্যা করেই থেমে থাকেনি ঘাতকেরা। ধরে নিয়ে যায় তাঁর ছোট ভাইকে। জাতীয় নেতা নজরুল ইসলামের স্বজনেরা জেলহত্যা বিচার কাজ শেষ না হওয়াতে ক্ষোভ জানানোর পাশাপাশি দ্রুত বিচার শেষ করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করা দাবি জানিয়েছেন। সেইসাথে পরবর্তী প্রজন্মের কাছে সৈয়দ নজরুল ইসলামের দেশপ্রেমের কথা তুলে ধরতে কিশোরগঞ্জে জাদুঘর প্রতিষ্ঠার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে এলাকাবাসী।
এস.এইচ/বি.এইচ/এস.এম.বি/০৯.০০
বিভাগ: প্রধান সংবাদ    দেখা হয়েছে ২৯৩৯ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :