ব্রেকিং নিউজ:
আক্তারুজ্জামান চৌধুরী বাবু আর নেই
নিউজ ডেস্ক    নভেম্বর ০৪, ২০১২, রবিবার,     ০৫:৫১:৫৭

 

চট্টগ্রাম-১২ (আনোয়ারা-কর্ণফুলী) আসনের সাংসদ ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু রোববার ভোরে মারা গেছেন।তাঁর বয়স হয়েছিল ৭১ বছর।
রোববার ভোর সাড়ে ৪টায় সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি । কিডনি রোগে আক্রান্ত হয়ে সেখানে তিনি চিকিৎসা নিচ্ছিলেন প্রায় এক মাস ধরে।
তিনি স্ত্রী,তিন ছেলে ও তিন মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।সকালে প্রবীণ এই নেতার মৃত্যুর খবর পৌঁছালে চট্টগ্রামে নেমে আসে শোকের ছায়া।
মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু চট্টগ্রাম থেকে চার বার- ১৯৭০, ১৯৮৬, ১৯৯৬ ও ২০০৮ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।
আক্তারুজ্জামান বাবু সংসদের পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি ছিলেন। তিনি ১৯৭৭ সাল থেকে আওয়ামী লীগ চট্টগ্রাম (দক্ষিণ) এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।
চট্টগ্রামের একজন নেতৃস্থানীয় শিল্পোদ্যোক্তা আখতারুজ্জামান বাবু ছিলেন ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি),জনতা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ও আরামিট গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান।
এছাড়াও তিনি ফেডারেশান অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) এর সভাপতি, দুইবারের জন্য চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (সিসিসিআই)-এর নির্বাচিত সভাপতি, প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে গ্রুপ-৭৭ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর সহ-সভাপতি এবং ও আই সিভুক্ত দেশসমুহের চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
আলহাজ্ব নুরুজ্জামান চৌধুরীর পুত্র আখতারুজ্জামান চৌধুরী ১৯৪৫ সালের ৩ মে চট্টগ্রামের আনোয়ারা থানায় হাইলধর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।
এদিকে স্বাধীনতা যুদ্ধসহ দেশ ও মানুষের কল্যাণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা এ প্রবীণ রাজনীতিবিদের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন দেশের রাজনৈতিক ও শিল্প অঙ্গনের কর্তাব্যক্তিরা।
আখতারুজ্জামান বাবুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জাতি একজন দেশপ্রেমিক রাজনীতিবিদকে হারালো।
রোববার এক শোক বার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাঙালির স্বাধিকার আন্দোলন ও মহান মুক্তিযুদ্ধে আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর ভূমিকা জাতি চিরদিন শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে।
তার মৃত্যুতে আওয়ামী লীগ হারিয়েছে দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত এক ত্যাগী নেতাকে, জাতি হারিয়েছে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও দেশপ্রেমিক রাজনীতিবিদকে। ব্যক্তিগতভাবে আমি হারিয়েছি এক অকৃত্রিম সুহৃদ।”
এছাড়া বর্ষীয়ান রাজনীতিক ও দেশের শীর্ষস্থানীয় সফল শিল্প উদ্যোক্তা আক্তারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর মৃত্যুতে পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী, জাতীয় সংসদের স্পিকার এডভোকেট আবদুল হামিদ, এলজিআরডি ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী আবদুল্লাহ আল নোমান, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) সভাপতি এ কে আজাদ এবং চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (সিসিসিআই) সভাপতি মোরশেদ মুরাদ ইব্রাহিম গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।
তারা মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

এম. এস./১১.৪৫
বিভাগ: প্রধান সংবাদ    দেখা হয়েছে ৯০৯ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :