ব্রেকিং নিউজ:
আজ নয়াপল্টনে ১৮ দলের সমাবেশ
নিউজ ডেস্ক    নভেম্বর ২৮, ২০১২, বুধবার,     ১১:৫৩:২৬

 

তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্হা বিষয়ে নতুন আন্দোলন কর্মসূচি দিতে পারেন বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া। বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে ১৮ দলীয় জোটের সমাবেশে থেকে তিনি এই কর্মসূচি ঘোষণা করবেন। আর এই নিয়ে দলীয় সমর্থকসহ সাধারণ মানুষের মধ্যে নানান জল্পনা-কল্পনা চলছে। তবে বিএনপির শীর্ষ নেতারা বলছেন, হরতাল-অবরোধের মতো কঠোর কর্মসূচি দেয়া হচ্ছেনা।
তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহালের জন্য গত ১২ই মার্চ ঢাকায় সমাবেশ করে সরকারকে সময় বেঁধে দিয়েছিল বিএনপিসহ ১৮ দল। গত ১১ই জুন একই দাবিতে আবারও মহাসমাবেশ করে তারা। তবে তারা কোন কঠোর কর্মসূচি দেয়নি। দলের নেতারা ২৮ নভেম্বরের সমাবেশ থেকে কঠোর কর্মসূচি দেয়ার প্রচার চালালেও এবারও হরতাল-অবরোধের মত কর্মসূচিতে যাচ্ছেনা বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্হায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশারফ এবং মির্জা আব্বাস।
অবশ্য এ সমাবেশ থেকেই সরকারের পতন ঘটানোর মত কঠোর ও লাগাতার কর্মসূচি আশা করছে বিএনপি’র অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। কিন্তু ডিসেম্বর মাসে বেশিরভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরীক্ষা চলার কারণেই কঠোর কর্মসূচি না দেয়ার কথা জানিয়েছেন বিএনপির নীতিনির্ধারকরা।
ডিসেম্বরে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের রায়ে ১৮ দলীয় জোটের কোন শরীক দলের নেতার বড় ধরণের সাজা হলে অন্তত একদিনের হরতাল আসতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন জোটের নেতারা।। তবে সে কর্মসূচি রায়ের প্রতিবাদে নয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে পালন করার পরিকল্পনা আছে দলটির।
সমাবেশে যোগদিতে বুধবার সকাল থেকেই ১৮ দলীয় জোটের নেতকর্মীরা বিচ্ছিন্নভাবে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের জনসভাস্থলে আসতে শুরু করেছে। মঙ্গলবার দিনশেষে সারা রাত ধরে সেখানে জনসভার মঞ্চ তৈরির কাজ চলেছে। বুধবার সকাল দশটার দিকে পল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে সমাবেশের প্রস্তুতি শেষ করেছে তারা।
এদিকে ১০ দিন আগে জনসভা করার অনুমতি চেয়ে আবেদন করে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট। মঙ্গলবার বিকালে ঢাকা মহানগর পুলিশের এক জরুরী সভা শেষে তাদেরক এই অনুমতি দেয়। ইতোমধ্যে মঞ্চের নিরাপত্তায় নারীসদস্যসহ ২০০ শতাধিক পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। বুধবার ভোর থেকেই তারা মঞ্চের চারপাশে অবস্থান নিয়েছে।
এস.এম.বি/১১.৫০
বিভাগ: প্রধান সংবাদ    দেখা হয়েছে ৫৬৩ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :