ব্রেকিং নিউজ:
দেশের বিভিন্ন স্থানে ভাংচুর, সংঘর্ষ
নিউজ ডেস্ক    ডিসেম্বর ০৪, ২০১২, মঙ্গলবার,     ১২:১৭:১৮

 

জামায়াতে ইসলামীর সকাল-সন্ধ্যা হরতালে দেশের বিভিন্ন স্থানে ভাঙচুর চালিয়েছে জামায়াত শিবির কর্মীরা।
সাভার ও গাজীপুরে হরতালের সমর্থনে গাড়ি পুড়িয়েছে জামাত কর্মীরা। পুলিশের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে বেশ কয়েকটি জেলায়।
সকালে সাভারের জালেশ্বর শিমুলতলা এলাকায় একটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন দেয় শিবির কর্মীরা। মহাসড়কের নয়ারহাটে পিকেটাররা টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ সৃষ্টি করে। হরতালের শুরুতে টেম্পু, ও স্থানীয় বাস চলাচল করতে দেখা গেছে। তবে দুরপাল্লর কোন বাস ছেড়ে যায়নি।
গাজীপুরের টঙ্গীতে হরতালের সমর্থনে বাসে আগুন ধরিয়ে দেয় জামায়াতে ইসলামীর নেতা কর্মীরা। ঢাকা- ময়মনসিংহ মহাসড়কে পিকেটিং করার সময় প্রায় আধ ঘন্টা ধরে পুলিশের সাথে ধাওয়া পাল্টা হয়। এ সময় আহত হন কমপক্ষে ১০ জন । আটক করা হয় ২ জনকে। প্রায় ১ ঘন্টা ওই মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেও যানবাহন চলাচল কম।
সকালে কুমিল্লার সদর হাসপাতাল রোড থেকে কান্দিরপাড়ের দিকে মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় পিকেটররা ২টি ট্রাক ভাংচুর করে। এছাড়া সকালে ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের আলেখারচর ও বেলতলীতে তারা সড়ক অবরোধ করে।
লক্ষ্মীপুর বাসটার্মিনালে পুলিশ-শিবির সংঘর্ষে ডিবির ওসি অহিদুল হক ২ পুলিশ কনস্টেবল আহত হন। পিকেটারদের বাধা দিলে তারা ইটপাটকেল ছুঁড়ে পুলিশ সদস্যদের আহত করে। সকাল থেকে জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীরা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে গাছের গুড়ি ও টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে। এসময় দু'টি সিএনজিও ভাংচুর করে তারা।
ভোরে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ঢাকা চট্রগ্রাম মহাসড়কে ব্যারিকেড দিয়ে যান চলাচল বন্ধ করে দেয় জামায়াত শিবির কর্মীরা। সকাল সাড়ে সাতটা পর্যন্ত এ অবস্থা থাকে। পুলিশ অবরোধ তুলে দিতে বলায় শুরু হয় সংঘর্ষ। এ সময় শিবির কর্মীরা কয়েকটি গাড়ী ভাংচুর করে।

এ.আর/১২১৩
বিভাগ: প্রধান সংবাদ    দেখা হয়েছে ৫৮৬ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :