ব্রেকিং নিউজ:
‘নিজভূমে পরবাসী যুদ্ধ শিশুরা’
নিউজ ডেস্ক    ডিসেম্বর ১৭, ২০১২, সোমবার,     ০২:৫৮:২৪

 

‘আমার নাম রায়ান বাদল। আমার দুইজন মা। একজন আমাকে ডাকে রায়ান বলে। আরেকজন আমাকে ডাকতো বাদল বলে। রায়ান বলে যিনি আমাকে ডাকেন, তাকে আমি আমার সারা জীবন ধরে চিনি। কিন্তু যিনি আমাকে বাদল বলে ডাকতেন তাকে আমি কখনো দেখিনি। তিনি আমাকে জন্ম দিয়েছিলেন বাংলাদেশে। সেই জন্মের তিন সপ্তাহ পরে আবার আমি জন্মেছিলাম আমার রায়ান নামে ডাকা ক্যানাডিয়ান মায়ের কোলে। বাদল নামে ডাকা আমার জন্মদাত্রী মাকে ১৯৭১ সালে ধর্ষণ করেছিল পাকিস্তানী এক সৈন্য। আমি একজন যুদ্ধ শিশু’
দুই লাখ ধর্ষিতা মা-বোনের আত্মত্যাগে জন্ম হয়েছে বাংলাদেশের। সে সময়ে যুদ্ধ শিশু হিসেবে জন্ম নেয়া কমপক্ষে ৫০ হাজার শিশুকে দত্তক হিসেবে পাড়ি দিতে হয় কানাডা, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের নানা দেশে। ২০০২ সালে মন্ট্রিলবাসী ক্যানাডিয়ান পরিচালক রেমন্ডে প্রভেনচার যুদ্ধ শিশুদের নিয়ে ‘War Babies’ নামে একটি ডকুমেনটারি তৈরি করেন। সেই ডকুমেন্টারিতে তিনি বেছে নেন ওয়াটারলু, ওন্টারিওতে বসবাসকারী এক ক্যানাডিয়ান যুবক রায়ান গুডসকে। যিনি নিজেকে রায়ান বাদল নামে পরিচয় দিতে বেশি সাচ্ছন্দবোধ করেন।
অন্ধকারাচ্ছন্ন অতীতকে ছুঁয়ে দেখার অভিপ্রায়ে সে যাত্রা করেছিল বহু বছর আগে তার জন্ম হওয়া এক অজানা দেশের উদ্দেশ্যে। বাবা মায়ের ভালবাসায় জন্ম নেয়ার সৌভাগ্য হয়নি রায়ানের। প্রেমহীন নিষ্ঠুর পৃথিবীতে অবাঞ্চিত হিসেবেই তার আগমন। রায়ান একজন যুদ্ধ শিশু। দেশ স্বাধীনের পর ১৯৭২ সালে জন্ম হয় রায়ানের। জন্মের তিন সপ্তাহ পর এই শিশুকে বাংলাদেশ থেকে দত্তক নিয়েছিল এক ক্যানাডিয়ান দম্পতি। সেখানেই তার বেড়ে উঠা। অতঃপর পরিণত বয়সে নিজের জন্মকালীন সময়কে অনুধাবন করা এবং মাকে খুঁজে পাবার জন্য ২০০২ সালে বাংলাদেশে আসেন রায়ান। রায়ানের মতো হাজারো ভাগ্যহত যুদ্ধ শিশুর আশ্রয় হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র কানাডা অস্ট্রেলিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এশিয়ান স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষক ডঃ বীনা ডি’কস্টা তার “Bangladesh’s erase past’ গবেষেণায় বলেছেন, সরকারি হিসাব অনুযায়ী একাত্তরে ধর্ষণের শিকার হয়েছিল দুই লাখ নারী। আর যুদ্ধ শিশু জন্ম নেয় কমপক্ষে ৫০ হাজার। দেশকে মুক্ত করার জন্য যখন মরিয়া গোটা বাঙালি জাতি তখন কোনো এক দিনের নিয়তির নিষ্ঠুরতায় বাংলার হতভাগা নারীদের গর্ভে জন্ম হয়েছিল যে রায়ানদের তাদের এদেশের উপর নেই কোনো অধিকার। স্বাধীনতার ৪১ বছর পরও নিজেদের অস্বিত্ত খুঁজে ফেরে রায়ানরা।

ইউ.আর/এস.এম.বি/১২.৫০
বিভাগ: প্রধান সংবাদ    দেখা হয়েছে ১২৯৩ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :