ব্রেকিং নিউজ:
নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবার আশাবাদ সিইসির
তানিয়া রহমান    জানুয়ারী ০৪, ২০১৪, শনিবার,     ০৯:১৪:২২

 

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সব প্রস্তুতি শেষ করেছে নির্বাচন কমিশন। ভোট কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে ব্যালট পেপারসহ নির্বাচনী সব সরঞ্জাম। নির্বাচনকে সুষ্ঠ করতে নেয়া হয়েছে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমেদ আশা করছেন নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হবে।
বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনের সচিবালয়ে মিডিয়া সেন্টার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সিইসি কাজী রকিব বলেন, আগুনে কেন্দ্র পুড়িয়ের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা যাবে না—প্রয়োজনে কেন্দ্র স্থানান্তর করে ভোটগ্রহণ চলবে।
সিইসি বলেন, ‘বেশ কয়েকটি ভোটকেন্দ্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তবে আমরা খবর নিয়েছি এর মধ্যে বেশকিছু আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেখানে আমাদের সেটটা পরিবর্তন করা লাগবে না। আমরা সেখানেই ঠিক করে ভোটগ্রহণ করতে পারবো।’
ভোট কেন্দ্রে আগুন দেয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি আরো বলেন, দশম জাতীয় নির্বাচন হবে একটি স্বচ্ছ ও সবার কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন। এ নির্বাচনে যেকোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি ঠেকাতে কমিশনের পক্ষ থেকে আইনশৃঙ্থলা বাহিনীকে তৎপর থাকতে বলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।
যে ১৪৭টি সংসদীয় আসনে ভোটের লড়াই হবে সেসব নির্বাচনী এলাকাগুলোতে এরইমধ্যে পৌঁছে গেছে ব্যালট বাক্স,ব্যালট পেপার,অমোচনীয় কালিসহ সব ধরনের সরঞ্জাম। আর এবার এই আসনগুলোর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রায় পৌনে ৪লাখ সদস্য।
এবার বিএনপি ও তার জোটের শরিক দলগুলো নির্বাচনে না থাকায় অংশ নিচ্ছে আওয়ামী লীগসহ ১২টি রাজনৈতিক দল। এত কম সংখ্যক দল অংশ নিলেও প্রধান নির্বাচন কমিশনার মনে করেন নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হবে। কম আসনে নির্বাচন হলেও নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে ভোট কেন্দ্রে যাবেন দেশের প্রায় চার কোটি ৩৯ লাখ ভোটার এমনটা আশা কমিশনের।নির্বাচন নিয়ে সংবাদকর্মীদের সঠিক তথ্য জাতির সামনে তুলে ধরার আহ্বান জানান কাজী রকিবউদ্দীন আহমেদ।

তানিয়া রহমান/মাহবুব সাঈফ/১৩:৩০
বিভাগ: প্রধান সংবাদ    দেখা হয়েছে ৯৪২ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :