ব্রেকিং নিউজ:
নির্বাচনোত্তর মিশরের পর্যটনে লেগেছে সুবাতাস
হাসানুর রহমান    জুন ২৫, ২০১২, সোমবার,     ০৯:১০:২৮

 

চার হাজার বছরের পুরনো ফারাও সাম্রাজ্যের ঐতিহ্য নিয়ে দাড়িয়ে আছে আজকের মিশর। এটাই গোটা বিশ্বের কাছে মিশরের অন্যতম পরিচিতি। আর পর্যটন খাতই দেশটার আয়ের অন্যতম একটা উৎস। গত বছরের মোবারক বিরোধী টানা বিক্ষোভের পর থেকেই ভাটা পড়ে মিশরের পর্যটন শিল্পে। নির্বাচনের পর ভূমধ্য সাগর পাড়ে কায়রোর পর্যটনে লেগেছে নতুন হাওয়া।
পিরামিড আর মমির দেশ মিশর। প্রত্ন সম্পদের ওপর ভাসেছে রাজধানী কায়রো। চার হাজার বছরের পুরোনো পিরামিড আর হাজার হাজার পুরাকৃত্তির আকর্ষনে প্রতিবছর কায়রোতে ছুটে আসেন পর্যটকরা। কিন্তু দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারক বিরোধী বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে বড় রকমের প্রভাব পড়েছে পর্যটন শিল্পে। বিশেষ করে মিশরের নিরাপত্তার বিষয়টি চিন্তায় ফেলছে পর্যটকদের।
অস্ট্রেলিয়ার পর্যটক গ্রাহাম স্টুয়ার্ট বলেন, ‘এখানে আসার আগে এখানকার নিরাপত্তা নিয়ে আমরা কিছুটা চিন্তিত ছিলাম। কিন্তু এখন নিরাপত্তা নিয়ে কোন চিন্তা নেই। আমরা খুবই খুশি’।
ইটালির পর্যটক মাউরো’র মতে,‘এখানে গত বছর সমস্যা ছিলো। কিন্তু এখন একটা সুন্দর সময় যাচ্ছে আশা করি। তাই এখানে আসার আগে আমরা মোটেও চিন্তিত ছিলাম না’।
প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সামনে রেখে, নিরপত্তা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতির পর বেড়েছে পর্যটকদের আনাগোনা। মিশরে বেড়াতে যাওয়া পর্যটকদেরও আশা নতুন রাজনৈতিক নেতৃত্ব দেশটিকে সামনের দিকে এগিয়ে নেবেন।
মিশরের রাজস্ব আয়ের অন্যতম উৎস তার পর্যটন শিল্প। দেশটির মোট দেশজ আয়ের ১০ শতাংশই আসে পর্যটন থেকে। মোবারক বিরোধী বিপ্লবের পর, সেই কমে গিয়েছিলো প্রায় এক তৃতীয়াংশ। তাই নির্বাচনী ইশতেহারেও গুরুত্ব পেয়েছে পর্যটন খাত।

হাসানুর রহমান/মাহবুব সাঈফ/বিশ্বযোগ/২০:১৮
বিভাগ: বিশ্বযোগ   দেখা হয়েছে ২২৪৫ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :