ব্রেকিং নিউজ:
টাইব্রেকারে পর্তুগালকে হারিয়ে ফাইনালে স্পেন
দেব চৌধুরী    জুন ২৮, ২০১২, বৃহস্পতিবার,     ০৬:২৩:১৬

 

টাইব্রেকারের খাড়ায় কাটা পড়লো পর্তুগাল। রোনালদোর দলকে ৪-২ গোলে হারিয়ে ইউরোর ফাইনালে স্পেন। আবারো স্পেনের জয়ের নায়ক সেস ফ্যাব্রেগাস জিইয়ে রাখলো ইউরোর বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের শিরোপা ঘরে রাখার স্বপ্ন।
স্পেনিশ লাইন আপে জায়গা হয়নি তোরেসের, বদলে আলভারো নেগ্রেদো। আর টানা চার ম্যাচ একই একাদশ নিযে খেলার পর পর্তুগাল স্কোয়াডে বদল ঘটলো, আলমেইদা আসলেন চোঁট-পাওয়া পস্টিগা’র জায়গায়।
ডনবাস অ্যারেনায় বল দখলের লড়াইয়ে শুরু থেকেই স্পেন এগিয়ে থাকলেও প্রতিপক্ষের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আক্রমণে উঠেছে পর্তুগাল।
৮ মিনিটে প্রথম আক্রমণে যায় স্পেন। নেগ্রেদোর কাছ থেকে বল পান ইনিয়েস্তা, দেন আরবেলয়াকে। কিন্তু গোলপোস্টের ওপর দিয়ে মারেন এই ডিফেন্ডার।
১৩ মিনিটে পর্তুগালের প্রথম প্রায় সফল আক্রমণে মাঝ মাঠ থেকে বল নিয়ে দৌঁড়ে প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগে ঢুকে পড়েন রোনালদো। তবে তার ক্রসে মাথা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হন ন্যানি।
শুরু থেকেই মাঝমাঠ দখলে রেখে খেলার চেষ্টা করছিল দু’দল। আক্রমণও হচ্ছিল, কিন্তু ফল আসছিল না। ২৯ মিনিটে স্পেনের একটি সম্মিলিত আক্রমণের বল ক্রসবারের উপর দিয়ে মারেন ইনিয়েস্তা।
দুই মিনিট পর আক্রমণে ওঠে পর্তুগাল। মউটিনহো কাছ থেকে বল পান পেরেইরা। সেখান থেকে রোনালদো। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদ তারকার শট সাইডবার ঘেঁষে বেরিয়ে যায়।
স্পেন শেষ দশ ম্যাচে বেশি গোল করেছে শেষ ত্রিশ মিনিটে। প্রথমার্ধে সময়ের সেই হিসাব বদলাতে পারেননি আরবেলোআ, ইনিয়েস্তারা। পর্তুগালও তৈরী করতে পারেনি সুযোগ। শুণ্যই নিয়তি, শূণ্যেই বিরতি।
দুই ম্যাচে তিন গোল। তিন ইউরোতে ছয়, একটি হলেই নিশ্চিত দলের জয়।সাথে অ্যালান শেযারারকে ছুঁয়ে ফেলা। সবই গেল সিআর স্যাভেনের কপাল থেকে।
নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে ম্যাচের সেরা সুযোগটি পেয়েছিলেন রোনালদো। জাবি আলোনসোর দুর্বল ফ্রি-কিকের বল ধরে কাউন্টার আক্রমণে ওঠে পর্তুগাল। মেইরেলেসের ঠেলে দেওয়া বল স্পেনের বক্সের সামান্য বাইরে পেয়ে যান রোনালদো। সামনে শুধু ক্যাসিয়াস। কিন্তু বলের ওপর নিয়ন্ত্রণ না থাকায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে চলে যায় তার শট।
নির্ধারিত নব্বই মিনিট শেষে অতিরিক্ত আরো আধঘন্টার লড়াইও সমান-সমান। এবার স্প্যানিশ ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতার পাল্লাই কেবল ভারী হলো। কি আর করা,এবার ভাগ্যের খেলা।
টানা আটটি নক আউট ম্যাচে গোল হজম করেননি ক্যাসিয়াস। এই ইউরোতে, এই ম্যাচের আগে, দুশো নিরানব্বই মিনিট কেউই পারেনি তাকে ফাঁকি দিতে।
দুদলের হেড টু হেডে ষোল জয়ে এগিয়ে ছিল স্পেন। রোনালদো স্পট কিক নেননি, সুযোগই হয়নি। তার আগেই খেলা শেষ....শট নেওয়ার অপেক্ষায় থাকা রোনালদোর চোখের সামনেই শেষ হয়ে যায় পর্তুগালের ইউরো স্বপ্ন।
পেনাল্টি শ্যুট আউটে স্পেনের পক্ষে গোল করেন আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, জেরার্ড পিকে, সার্জিও রামোস ও সেস ফ্যাব্রিগাস। নিশানাভেদে ব্যর্থ হন জাভি আলনসো। অন্যদিকে পর্তুগালের পক্ষে গোল করেন পেপে ও নানি। গোল করতে পারেননি জোয়াও মৌতিনহো ও ব্রুনো আলভেস। দ্যুতি ছড়িয়ে, আশা জাগিয়ে সিআর স্যাভেন পারেননি, পর্তুগালও জেতেনি,সেমিতেই ইতি। এখন স্পেনের সামনে চ্যালেঞ্জ, ঘরে থাকা শিরোপা ধরে রাখা।
ডি. সি./ এম. এস./ সকাল ১০.০৫
বিভাগ: খেলাযোগ   দেখা হয়েছে ৫২৯ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :