ব্রেকিং নিউজ:
সেনা ও প্রেসিডেন্টের দ্বন্দ্ব,সঙ্কটে মিশরের গণতন্ত্র
আফসানা শাওন    জুলাই ১০, ২০১২, মঙ্গলবার,     ০২:৫৪:২৭

 

শপথ নেয়ার দু' সপ্তাহের মধ্যেই সেনাবাহিনীর সাথে বিরোধে জড়ালেন মিসরের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মেদ মুরসি। পার্লামেন্ট পুর্ণবহালে প্রেসিডেন্ট মুরসির নির্দেশ প্রত্যাখান করেছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। এর ফলে গণতন্ত্র এলেও সংকট কাটছেনা মিশরে।
এই শপথ অনুষ্ঠানকে ঘিরে গণতন্ত্রের যে স্বপ্ন দেখেছিলো মিশরের মানুষ, সে স্বপ্নের দেয়ালে আচড় কাটছে সেনা ও প্রেসিডেন্টের ক্ষমতার দ্বন্দ্ব।
মুরসির সমর্থকরা বলছেন, এর নেপথ্যের কলকাঠি সেনাবাহিনী নাড়াচ্ছে। আর এ ক্ষেত্রে বিরোধীদের অবস্থান আদালতের পক্ষে। ফলে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হবার পরও মুরসি’র যে কায়রোর প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ খুব সুখের হচ্ছেনা তা স্পষ্ট হয়ে উঠছে।
কিন্তু আদালতের নির্দেশে বাতিল করা পার্লামেন্ট পুর্ণবহালের অধিকার প্রেসিডেন্টের নেই বলে উল্লেখ করেছে আদালত।রায় অনুযায়ী পার্লামেন্ট বাতিল নির্ধারিত। এর বিরুদ্ধে আপিল আবেদন করার ক্ষমতাও থাকছেনা কোনো ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানের।
মুরসির সমর্থকরা বলছেন, তাদের একজন নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট আছেন যিনি তিন কোটি মানুষের ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। তার সব রকম অধিকার আছে পার্লামেন্ট পূনর্বাহালের। দেশ শাসনের জন্য ১৯ জনকে নির্বাচিত করা হয়নি।
এই বাতিল আর পুনবর্হালের রাজনীতির শুরু হয় মুরসি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোটের ফলাফল ঘোষণার আগেরদিন। সেদিনই দেশটির সুপ্রিম কাউন্সিল একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে ভেঙ্গে দেয় ব্রাদারহুড সমর্থিত সংখ্যাগরীষ্ঠ পার্লামেন্ট। মুরসির সাথে সেনাবাহিনীর দুরত্ব বাড়তে থাকায় সঙ্কট তৈরি হচ্ছে মিশরের গণতন্ত্রে।


এ.এস/এ.আর/১৪৫০
বিভাগ: বিশ্বযোগ   দেখা হয়েছে ৫০৭ বার.

 

শেয়ার করুন :

 
মন্তব্য :