ঢাকা ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

ব্যাঙ্গালুরুর অধিনায়কত্ব ছাড়লেন ভিরাট কোহলি

কোহিনূর কণা, একাত্তর
প্রকাশ: ১২ অক্টোবর ২০২১ ১২:৪৭:১৪ আপডেট: ১২ অক্টোবর ২০২১ ১৩:২৪:৫১
ব্যাঙ্গালুরুর অধিনায়কত্ব ছাড়লেন ভিরাট কোহলি

আরো একবার শিরোপা মিশনে ব্যর্থ রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু। এলিমিনেটরে কলকাতা নাইট রাইডার্সের কাছে চার উইকেটে হেরে কোহলি বাহিনীর বিদায়। একই সাথে আরসিবির জার্সিতে ক্যাপ্টেন কোহলির বিদায়ঘণ্টা। ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে খেললেও আর পড়া হবেনা আর্ম ব্যান্ডটা। আইপিএলের ২০১৩ সিজন থেকে শুরু হয়ে ক্যাপ্টেন কোহলির জার্নি শেষ হলো চলতি আসরে। 

২২ গজের এই অ্যাগ্রেসিভ মানুষটাকে কে কবে দেখেছে এমনভাবে? 

শেষ বেলায় অদ্ভুত এক অন্তমিল...আরসিবির ক্যাপ্টেন হিসেবে কোহলি প্রথম ম্যাচে করেছিলেন ৩৯ রান। অজানা এক চক্র মেনে শেষ ম্যাচেও বিরাট করলেন সেই ৩৯। তবে হলোনা মধুরেণ সমাপয়েৎ। হারের বেদনায় আইপিএলে ইতি ঘটলো কিং কোহলির অধিনায়ক অভিযান।

জাতীয় দলের জার্সি গায়ে কতশত সফলতার গল্প লিখেছেন ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি। কিন্তু আইপিএলে ক্যাপ্টেন হিসেবে কোহলি যেনো শুধুই ব্যর্থতার নাম। বারবার ট্রফির কাছে গিয়েও ফিরেছেন খালি হাতে। 

ভালো-মন্দের মিশেলে ক্যাপ্টেন কোহলির আরসিবি জার্নি। কোহলির নেতৃত্বে ১৪০ ম্যাচ খেলে আরসিবি জিতেছে ৬৬টি, হেরেছে ৭০ ম্যাচে। জয়ের শতকরা হার পঞ্চাশ শতাংশেরও কম। 

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের নিরাপত্তা নিয়ে উদাসীন আইসিসি

আরসিবির অধিনায়ক হিসাবে ভিরাট কোহলির সর্বোচ্চ সাফল্য ২০১৬ আসরের রানার আপ হওয়া। এরপর শুধুই হতাশা। ট্রফি জিততে না পারার ব্যর্থতা আজীবন হয়তো তাড়িয়ে বেড়াবে ভিরাটকে। 

শুধু অধিনায়ক হিসেবেই নয়, চলতি আইপিএলে ব্যাটসম্যান বিরাটকেও খুঁজে পাওয়া যায়নি। নেই কোনো শতক, হাফ সেঞ্চুরি করছেন মোটে তিনটা। বিদায় বেলায় হতাশায় মোড়া কিং কোহলি।

"দলে এমন একটা সংস্কৃতি তৈরির চেষ্টা করেছি আমি, যেখানে তরুণ ক্রিকেটাররা এসে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে নিজেদের মেলে ধরতে পারে। এটুকুই বলতে পারি, আমি এই ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে প্রতি মৌসমে ১২০ শতাংশ দেওয়ার চেষ্টা করেছি", বিদায়বেলায় বললেন কোহলি।  

যা কাল পর্যন্ত হয়নি তা এবার হোক। আর্ম ব্যান্ডটাকে খুলে রেখে সব জার্সিতে ইতিহাসের সফলতম ব্যাটসম্যান হয়ে ফিরে আসুক কিং কোহলি। 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন