ঢাকা ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

সঞ্চয়ী হিসাবে সবচেয়ে বেশি টাকা রাখছেন গ্রাহকরা

কাবেরী মৈত্রেয়, একাত্তর
প্রকাশ: ১৭ নভেম্বর ২০২১ ১৭:৩৪:৩৯
সঞ্চয়ী হিসাবে সবচেয়ে বেশি টাকা রাখছেন গ্রাহকরা

করোনার এ সময়ে বিশেষ সঞ্চয়ী হিসাবে সবচেয়ে বেশি টাকা রাখছেন গ্রাহকরা। চাইলে যে কোন সময় টাকা তোলা যায়, আছে মুনাফাও।  

আর, তাই এ খাতে টাকা রাখার পরিমাণ ৩৫ শতাংশ বেড়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, কেবল এ হিসাবই নয়, আমানতও বাড়ছে জোরেশোরে। যার কারণ হিসেবে, প্রবাসী আয় বৃদ্ধি, অর্থনীতিতে কিছুটা স্থবিরতাসহ নানা কারণ দেখছেন ব্যাংকাররা। 

ব্যাংকে কষ্টার্জিত অর্থ লগ্নি করলে তা খোয়া যাওয়ার ঝুঁকি তুলনামূলক কম। আছে এর বিপরীতে মুনাফা হিসাবে কিছু বাড়তি টাকা আয়ের ব্যবস্থাও। তাই দেশের ব্যাংক খাতকে অর্থ লগ্নির মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে মানুষ। 

আর এতেই বেড়েছে আমানতের পরিমাণ। বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাবে, সেপ্টেম্বর শেষে ব্যাংক খাতে মোট আমানত ছাড়িয়েছে ১৫ লাখ কোটি টাকা। যা মহামারীর এ সময় বছর ব্যবধানে প্রায় দেড় লাখ কোটি টাকা বেড়েছে। 

আরও পড়ুন: পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতা চলছে

বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তারেক মোর্শেদ জানান, রেমিটেন্স বাড়ার পাশাপাশি মহামারীর কারণে অর্থনীতির স্থবিরতার কারণে আমানত বাড়ছে। বিনিয়োগে গতি আসার সঙ্গে সঙ্গে আবার স্বাভাবিক হারে ফিরবে আমানত। 

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, এ সময় বিশেষ সঞ্চয়ী হিসাবে সবচেয়ে বেশি টাকা রাখা হচ্ছে । যা বছর ব্যবধানে বেড়েছে অন্তত ৩৫ শতাংশ। 

জনতা ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ড. জামাল উদ্দীন মনে করেন, বিশেষ সঞ্চয়ী হিসাবে অর্থ রাখার প্রবণতা ইঙ্গিতপূর্ণ। 

তিনি বলছেন, আমানতের উচ্চ প্রবৃদ্ধি কালো টাকা সাদা করার ঢালাও সুযোগের ব্যবহারের ফলাফল। তাই এসবের বিপরীতে বিদেশে অর্থ পাচারের উদ্দেশ্যে আছে কিনা, সেটিও খতিয়ে দেখা উচিৎ বলে মনে করেন এই বিশ্লেষক।  


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

৩ দিন ২৩ ঘন্টা আগে