ঢাকা ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

কূটনৈতিক পাসপোর্টে কানাডা গেছেন ডা. মুরাদ

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ১০ ডিসেম্বর ২০২১ ১৯:৩৫:৩৪ আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০২১ ২২:২৩:৪৯
কূটনৈতিক পাসপোর্টে কানাডা গেছেন ডা. মুরাদ

কূটনৈতিক (ডিপ্লোমেটিক) পাসপোর্টে কানাডা গেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর পদ হারানো ডা. মুরাদ হাসান। সম্প্রতি পদ হারানোর পর গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে দেশ ছেড়ে যান তিনি।

সংসদ সদস্য হিসেবে ডিপ্লোমেটিক পাসপোর্ট পাওয়ার অধিকার রয়েছে মুরাদের। গত সেপ্টেম্বরে এই পাসপোর্ট ব্যবহার করে ভিসা আবেদন করেন এবং ব্যক্তিগত সফরে কানাডা যান তিনি।

বৃহস্পতিবার (৯ ডিসেম্বর) রাত ৯টার দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান ডা. মুরাদ হাসান। রাত ১১টা ২০ মিনিটের দিকে এমিরেটস এয়ালাইন্সের একটি ফ্লাইটে তার রওনা হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু ওই ফ্লাইটটি ছেড়ে যায় রাত ১টার দিকে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দুবাই হয়ে কানাডায় গেছেন মুরাদ।

প্রসঙ্গত, বিএনপির এক শীর্ষ নেতার মেয়েকে নিয়ে আপত্তিকর বক্তব্য দেয়ার মধ্যেই ডা. মুরাদ হাসানের একটি অডিও রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়।

ঢাকাই সিনেমার নায়িকা মাহিয়া মাহির সঙ্গে ফোনালাপের ওই অডিওতে মুরাদ হাসানকে অশ্লীল কথাবার্তা ও নায়িকাকে ধর্ষণের হুমকি দিতে শোনা যায়। এ ঘটনায় দেশব্যাপী তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

এতে বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও সরকার। এরপর সোমবারই (৬ ডিসেম্বর) মুরাদকে পদত্যাগের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) পদত্যাগপত্র জমা দেন মুরাদ। ওইদিন বিকালেই মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারির পর প্রকাশিত গেজেট বলা হয়েছে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের পদত্যাগপত্র রাষ্ট্রপতি কর্তৃক গৃহীত হয়েছে।

আরও পড়ুন: বাংলাদেশি শ্রমিক নিয়োগে শিগগিরই চুক্তি সই করবে মালয়েশিয়া

মুরাদ হাসান জামালপুর-৪ (সরিষাবাড়ী উপজেলা) আসনের সংসদ সদস্য। তার বাবা প্রয়াত মতিউর রহমান তালুকদার জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। বেশ কিছু দিন ধরে বিভিন্ন বিষয়ে বিতর্কিত বক্তব্য এবং কর্মকাণ্ডের কারণে মুরাদ সংবাদের শিরোনাম হয়েছেন। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রতিমন্ত্রীর কিছু অডিও-ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় দেশজুড়ে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় বইছে।

এদিকে জামালপুর আওয়ামী লীগ থেকে মুরাদ হাসানকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। চূড়ান্ত বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে সুপারিশ করা হয়েছে।


একাত্তর/আরএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

৩ দিন ১৫ ঘন্টা আগে