ঢাকা ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

গ্রেপ্তার আতঙ্কে জনশূন্য চার গ্রাম, ফিরতে অভয় দিচ্ছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিনিধি, জামালপুর
প্রকাশ: ১১ জানুয়ারী ২০২২ ১৩:১৫:১৬ আপডেট: ১১ জানুয়ারী ২০২২ ১৭:৩০:৩০
গ্রেপ্তার আতঙ্কে জনশূন্য চার গ্রাম, ফিরতে অভয় দিচ্ছে পুলিশ

জামালপুরের বকশীগঞ্জে পুলিশের সাথে সহিংসতার ঘটনায় জনশুন্য চার গ্রামের নিরপরাধ মানুষকে ঘরে ফেরার আহবান জানিয়েছে বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) বিকেলে মেরুরচর গ্রামে গিয়ে এ আহবান জানায় পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ৫ জানুয়ারি মেরুরচর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলাকালে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জোরপূর্বক ব্যালটে সিল মারার গুজব ছড়িয়ে দেন। 

এতে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনোয়ার হক মিয়া ও আওয়ামী লীগের প্রার্থী সিদ্দিকুর রহমানের সমর্থকদের মাঝে সংঘর্ষ বাঁধে। এসময় পুলিশের সাথে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়।

সংঘর্ষে বকশীগঞ্জ থানার দুই পরিদর্শক (ওসি) শফিকুল ইসলাম সম্রাট ও আব্দুর রহিমসহ ১০ পুলিশ সদস্য আহত হন। এসময় পুলিশের গাড়িতে অগ্নিসংযোগসহ চারটি মোটরসাইকেলও পুড়িয়ে দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: অতিরিক্ত মদপানে বৃদ্ধের মৃত্যু

এ ঘটনায় ৯২ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত আরও ১৭শ' জনকে আসামি করে বকশীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শরিফ আহাম্মেদ বাদি হয়ে একটি মামলা করলে মেরুরচর ইউনিয়নের মেরুরচর উত্তরপাড়া, দক্ষিণপাড়া, ফকিরপাড়া ও বাঘাডবা গ্রামের মানুষ গ্রেপ্তার আতঙ্কে গ্রামছাড়া হয়।

গত পাঁচদিন গ্রামের আটটি মসজিদে আজান দেওয়া হয়নি। এর মধ্যে একজনের মৃত্যু হলেও ভয়ে কেউ জানাজার নামাজেও অংশ নেয়নি।

এ ঘটনার প্রেক্ষিতে সোমবার বকশীগঞ্জ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম মেরুরচর গ্রামে গিয়ে সাধারণ নিরপরাধ মানুষকে গ্রামে ফেরার অনুরোধ করার পাশাপাশি পুলিশকে সহযোগিতা করার জন্য অনুরোধ করেন।


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

বাতাস যখন ভয়ঙ্কর-২

৩ দিন ১৪ ঘন্টা আগে