ঢাকা ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯

কাজাখস্তানে বিক্ষোভ-সহিংসতায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২২৫

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ১৬ জানুয়ারী ২০২২ ১০:৫৩:১০ আপডেট: ১৬ জানুয়ারী ২০২২ ১১:১৮:৩২
কাজাখস্তানে বিক্ষোভ-সহিংসতায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২২৫

মধ্য-এশিয়ার বৃহত্তম তেলসমৃদ্ধ দেশ কাজাখস্তানে তেলের দাম বাড়ার প্রতিবাদে চলমান বিক্ষোভ-সহিংসতায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২২৫ জনে। বেসামরিক নাগরিকসহ নিহতদের মধ্যে ১৯ জন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যও রয়েছেন। এখন পর্যন্ত আহত হয়েছেন কমপক্ষে পাঁচ হাজার মানুষ। 

শনিবার (১৫ জানুয়ারি) দেশটির প্রোসিকিউটর কার্যালয়ের এক প্রতিনিধি সেরিক শালাবায়েভ এসব তথ্য জানান। খবর দ্য গার্ডিয়ানের। 

বিক্ষোভকারীদের 'সন্ত্রাসী' হিসেবে উল্লেখ করে সেরিক বলেন, নিরাপত্তাবাহিনীর গুলিতে সশস্ত্র ডাকাতরা নিহত হয়েছে। এখন পর্যন্ত ২২৫ জনের মরদেহ মর্গে পৌঁছেছে। ১৯ জন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যও প্রাণ হারিয়েছেন। দুর্ভাগ্যজনকভাবে কিছু বেসামরিক মানুষও নিহত হয়েছেন।

চলমান সহিংসতায় দুই হাজার ছয়শ মানুষ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন। আহতদের মধ্যে ৬৭ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন, দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আসেল আর্তাকশিনোভা।  

এদিকে কাজাখ কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, বিক্ষোভে যারা অংশগ্রহণ করেছে তারা সকলে বহিরাগত সন্ত্রাসী। তারা বৃহত্তম শহর আলমাতিতে ভাঙচুর করেছে, পাশাপাশি সরকারি সম্পত্তি ধ্বংস করেছে। 

এর আগে গেলো শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) কাজাখস্তানে যারা বিক্ষোভ করছে তাদের 'সন্ত্রাসী' হিসেবে আখ্যা দিয়ে সরাসরি তাদের গুলি করে হত্যার নির্দেশ দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট কাসিম-জোমার্ট টোকায়েভ। এ সময় যারা সরকারের কাছে আত্মসমর্পণ করতে ব্যর্থ হবে তারা 'ধ্বংস' হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

তিনি বলেন, আমাদের অস্ত্র দিয়েই দেশি-বিদেশি দস্যুদের মোকাবেলা করতে হবে। আরও স্পষ্ট করে বললে, সন্ত্রাসীদের সাথে লড়াই করতে হবে। তাদের ধ্বংস করা হবে, এটি শীঘ্রই করা হবে।

আরও পড়ুন: নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু

উল্লেখ্য, জ্বালানি তেলের দাম অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি করায় গত রোববার আন্দোলনে নামে কাজাখস্তানের জনগণ। পরিস্থিতি সামাল দিতে আন্দোলনকারীদের ওপর গুলি চালায় পুলিশ। এক পর্যায়ে রাশিয়ার নেতৃত্বাধীন কালেক্টিভ সিকিউরিটি ট্রিটি অরগ্যানাইজেশনের কাছে হস্তক্ষেপের অনুরোধ করেন প্রেসিডেন্ট কাশেম-জোমার্তে তোকায়েভ। 

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত পাঁচ হাজার বিক্ষোভকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 


একাত্তর/আরবিএস  

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন