ঢাকা ১৬ মে ২০২১, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

মানুষের মৃত্যু দেখে আত্মহত্যা করলেন করোনা ওয়ার্ডের চিকিৎসক

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ০২ মে ২০২১ ০৮:৪৯:৪৪ আপডেট: ০৩ মে ২০২১ ১১:৫০:১২
মানুষের মৃত্যু দেখে আত্মহত্যা করলেন করোনা ওয়ার্ডের চিকিৎসক

করোনায় মৃত্যুর মিছিল চলছে ভারতে। শয়ে শয়ে মানুষ মারা যাচ্ছেন মহামারিতে। এমনকি সৎকারের জন্য পাওয়া যাচ্ছেনা পর্যাপ্ত জায়গা। এ পরিস্থিতিতে দিল্লির একটি বেসরকারি হাসপাতালের একজন আবাসিক চিকিৎসক আত্মহত্যা করেছেন।  

এবিপি আনন্দের খবরে বলা হয়েছে, চোখের সামনে একের পর এক মৃত্যুর দৃশ্য মেনে নিতে পারেননি তরুণ চিকিৎসক ডা. বিবেক রাই (৩৬)। টানা একমাস ধরে করোনা ইউনিটে কাজ করার সময় তিনি হাজার হাজার রোগীর মৃত্যু দেখেছেন। শেষ পর্যন্ত চাপ নিতে না পেরে রোববার ‘মুক্তি’ হিসেবে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন রাই।

এক টুইটবার্তায় ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (আইএমএ) সাবেক প্রধান প্রফেসর ডা. রবি ওয়ানখেদকর বলেন, ডা. বিবেক রাই নামের ওই চিকিৎসক ছিলেন খুবই মেধাবী। উত্তরপ্রদেশের গোরখাপুরে তার বাড়ি। মহামারিকালে শত শত মানুষের জীবন প্রাণ বাঁচাতে তিনি সহায়তা করেছেন।

"মানুষের মৃত্যু দেখতে দেখতে ওই চিকিৎসক মানসিক বিষণ্নতায় ভোগেন। এরপর হতাশা থেকেই একসময় তিনি আত্মহত্যার মতো কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।"

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, প্রায় একমাস ধরে এই করোনা ইউনিটে কাজ করছিলেন ডা. বিবেক রাই। প্রতিদিন প্রায় ৭ থেকে ৮ জন আশঙ্কাজনক করোনা রোগী থাকত তার তত্ত্বাবধানে। আর একের পর এক মৃত্যু দেখে বিচলিত হয়ে পড়েছিলেন এই চিকিৎসক।

সর্বশেষ মৃত চিকিৎসকের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য এইমস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এছাড়া লাশের পকেট থেকে একটি সুইসাইট নোটও উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছেন দক্ষিণ দিল্লির মালভিয়া নগর পুলিশ।

প্রসঙ্গত, দিল্লিতে শেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৭ হাজার ৪৭ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩৭৫ জনের। শনিবার সকালে দিল্লির একটি হাসপাতালে চিকিৎসকসহ ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে অক্সিজেনের অভাবে।

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন