ঢাকা ১৬ মে ২০২১, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

সরকারি প্রতিষ্ঠানকে নিজস্ব আয়ে চলতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ০৪ মে ২০২১ ২০:৪৮:৪৪ আপডেট: ০৫ মে ২০২১ ১২:০৬:৩৯
সরকারি প্রতিষ্ঠানকে নিজস্ব আয়ে চলতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সব প্রতিষ্ঠানকে নিজস্ব আয়ে চলার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এজন্য প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে স্বাবলম্বী হতে তাগাদাও দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার, জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় তিনি এসব নির্দেশ দেন বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেকের সভায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী।

বৈঠক বাংলাদেশ টেলি কমিউনিকেশন কোম্পানি লিমিটেডের (বিটিসিএল) প্রস্তাবিত ৯৫ কোটি ১২ লাখ টাকার একটি প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয় এ সময় প্রধানমন্ত্রী দ্রুত সব সরকারি প্রতিষ্ঠানকে নিজের পাঁয়ে দাঁড়াতে তাগাদা দেন

বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলেন, “বিটিসিএল সরকারি তহবিল থেকে অর্থ ব্যয়ে একটি প্রকল্প বাস্তবায়নের প্রস্তাব করেছিল। প্রধানমন্ত্রী জানতে চান, বিটিসিএল তো একটি কোম্পানি, তারা তো নিজেরা টাকা আয় করে। তাহলে তারা নিজেরা টাকা দিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে পারছে না কেন? এটাতো করা উচিত। এটা দীর্ঘদিন আর চলবে না, সম্ভব নয়। আপনারা তাড়াতাড়ি নিজেদের পায়ে দাঁড়াবার ব্যবস্থা করেন”

মান্নান বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী বলেছেন যেসব কোম্পানি আমরা বানিয়েছি সেটা, টেলিযোগাযোগ হোক, সিভিল এভিয়েশন হোক, পানির ওপরে হোক বা সমিতির হোক; দীর্ঘদিন ধরে ক্ষতিপূরণ দিয়ে দিয়ে পুনর্ভরণ করে করে চালানো- এটা ব্যবসায়িক সেন্সের মধ্যে পড়ে না। কত দিন দেব আমরা?”

এ বিষয়ে সরকার কোনো পথনির্দেশ দিয়েছে কিনা- এমন প্রশ্নের উত্তরে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, “না, সরকার কোনো রোড ম্যাপ দেয়নি। আপনারা ব্যবসা করবেন। আপনাদের বুদ্ধিসুদ্ধি ইউজ করে ব্যবসা করেন। আমি আপনাকে রোড ম্যাপ দিলে আপনাদের স্বাধীনতা, স্বকীয়কতা কোথায় থাকবে?”

তিনি বলেন, “আপনাকে চার্টার দেওয়া হয়েছে, কোম্পানি অ্যাক্টে আপনাকে নিবন্ধিত করা হয়েছে, কোম্পানি করা হয়েছে, পুঁজি দেওয়া হয়েছে, সবই দেওয়া হয়েছে।'

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে পরিকল্পনামন্ত্রী এসময় বলেন, 'তিনি বলেছেন, ‘সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে আয়-ব্যয় করবেন, ব্যালেন্সশিট দেখাবেন, নিজেরা চলবেন, এই হল কথা”

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ সকল সরকারি কোম্পানিকেই নিজেদের টাকা দিয়ে চলতে হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “সরকারি টাকায় তারা চলবে- এটা গ্রহণযোগ্য নয়”

করোনার ভারতীয় টিকা সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে পরিকল্পনান্ত্রী বলেন, সেরাম ইনস্টিটিউটের টিকা প্রদানে চুক্তি থেকে সরে আসার আইনি সুযোগ নেই ভারতের। তবে টিকা প্রদানে ভারতের নিজেরই সক্ষমতার ঘাটতি তৈরি হয়েছে। এ কারণে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। সরকার বিকল্প উৎস থেকে টিকা সংগ্রহের চেষ্টা করছে।

একনেকের সভায় ১১ হাজার ৯০১ কোটি ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে ১০টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে বলে জানান পরিকল্পনামন্ত্রী। এসব প্রকল্পের মধ্যে সরকারি অর্থায়ন আট হাজার ৯৯১ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। বৈদেশিক উৎস থেকে ঋণ দুই হাজার ৯৯ কোটি ৯১ লাখ টাকা। আর সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন ৮০৯ কোটি ৯৮ লাখ টাকা।

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন